/* */
   Sunday,  Jun 24, 2018   8 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •আওয়ামী লীগের ইতিহাস মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার ইতিহাস : প্রধানমন্ত্রী •জাতীয় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করুন : রাষ্ট্রপতি •এমপি হোক আর এমপির ছেলে হোক কাউকে ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল • তিন সিটিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা •নাইজেরিয়ার জয়ে আর্জেন্টিনার স্বপ্ন বড় হলো •আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা কর্মসূচি •টেলিটকের ফোরজির জন্য অপেক্ষা আরো চার মাস
Untitled Document

খুলে ফেলা হল ‘প্রেমের তালা’

তারিখ: ২০১৫-০৬-০৪ ১৪:১১:৩৯  |  ২০৬ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

ডেস্ক নিউজ: অবশেষে খুলে ফেলা হল ভালবাসার প্রতীক হিসেবে পরিচিত ফ্রান্সের পঁ দে আর্টস সেতুর রেলিংয়ে ঝোলানো সব তালা। ভালবাসার মানুষের সঙ্গে সারাজীবন কাটানোর আশায় সেতুতে প্রেমের তালা লাগিয়ে চাবি নদীতে ফেলে দেয়াটা একরকম রীতি হয়ে দাঁড়িয়েছিল পর্যটকদের কাছে।

তবে, সম্প্রতি এই লাখ লাখ তালার ভারে ১৯ শতকের এই সেতু ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ায় সব তালা সরিয়ে ফেলার কাজ শুরু করে কর্তৃপক্ষ।

পর্যটকরা সিদ্ধান্তটিকে হৃদয় বিদারক বললেও ঐতিহাসিক ও দর্শনীয় এই সেতুটি বাঁচাতে এর কোন বিকল্প ছিল না বলেই জানিয়েছে প্যারিস কর্তৃপক্ষ।

ভালবাসার নগরী প্যারিস। আর ভালবাসার মানুষটিকে নিয়ে এই প্যারিসে ঘুরতে এসে, ভালবাসার প্রতীক হিসেবে পরিচিত পঁ দে আর্টস সেতুতে একটি তালা ঝুলিয়ে চাবি নদীতে ফেলে যাননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া হয়তো সত্যিই কঠিন। সম্প্রতি সেতুতে ঝোলানো এই লাখ লাখ তালা খুলে ফেলার কাজ শুরু করেছে প্যারিস কর্তৃপক্ষ। সেইসঙ্গে, ভবিষ্যতেও নিষিদ্ধ করা হয়েছে সেতুতে তালা ঝোলানো।

প্যারিসের ডেপুটি মেয়র ব্রুনো জুলিয়ার্ড বলেন, প্যারিস কর্তৃপক্ষ চায় এই শহরকে ভালবাসার নগরী হিসেবেই জানুক সবাই। তবে, প্রায় ১০ লক্ষ তালার ভারে এই সেতু ঝুঁকির মধ্যে পড়ে গিয়েছিল যার ওজন প্রায় ৪৫ টনের কাছাকাছি। এগুলো সৌন্দর্য নষ্টের পাশাপাশি দুর্ঘটনার আশঙ্কাও তৈরি করছিল। তাই আমরা বাধ্য হয়েছি এগুলো সরিয়ে নিতে। আমি আশা করব বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকরা আগের মতই তাদের ভালবাসার মানুষটিকে নিয়ে এখানে আসবে, তবে অবশ্যই তালা ছাড়া।

ভালবাসার মানুষটিকে সঙ্গে নিয়ে সেতুতে ঘুরতে আসা পর্যটকরা এতদিন নিজেদের নাম লেখা তালা সেতুর রেলিংয়ে ঝুলিয়ে চাবি ফেলে দিতেন নিচের শ্যেন নদীতে। সম্প্রতি সেতুটি থেকে তালা সরিয়ে নেয়ায় সিদ্ধান্তে হতাশা প্রকাশ করেন এখানে ঘুরতে আসা পর্যটকরা।

এক পর্যটক বলেন, তালা লাগানোর ইচ্ছা নিয়ে এখানে এসেছিলাম। কিন্তু এখানে এসে দেখছি এটা এখন নিষিদ্ধ। সব তালা সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। তাই সেতুর একেবারে শেষে প্রান্তে তালাটি চুপিচুপি রেখে গেলাম।

এদিকে, ভবিষ্যতে যাতে আর তালা লাগানো না যায়, সেজন্য সেতুটির রেলিং থেকে গ্রিল সরিয়ে বিশেষ কাঁচ লাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সেইসঙ্গে, নানা ধরনের লেখা আর ছবিতে সাজানো স্ট্রিট আর্ট প্যানেল বসানো হবে সেখানে, যা পর্যটকদের সেলফি তুলতে উৎসাহিত করবে বলে মনে করছেন তারা।

সেতুতে তালা ঝোলানোর এই রীতি শুরু হয় ২০০৮ সালের দিকে। পরে, ইউরোপ, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়াসহ চীনের বিখ্যাত কিছু শহরেও তা ছড়িয়ে পড়ে।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•কলাপাড়ায় টিয়াখালী ইউনিয়নের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা ॥ •নবম ওয়েজ বোর্ডের কার্যক্রম শুরু •কলাপাড়ায় শিক্ষক-কর্মচারী সংগ্রাম কমিটির স্মারকলিপি প্রদান ॥ •খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ •ফিলিপাইনে ঝড়ের আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৩ •শেখ হাসিনাকে ‘বোন’ ডাকলেন হুন সেন •তুর্কি বাহিনীর সিরিয়ায় প্রবেশ •কবিসংসদ বাংলাদেশ-এর ২৯৯তম সাহিত্যসভা অনুষ্ঠিত
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document