/* */
   Wednesday,  Sep 19, 2018   03:52 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মী প্রেরণে কোন বাধা নেই : প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী •একাদশ সংসদ নির্বাচনে এক-তৃতীয়াংশ আসনে ইভিএম •লন্ডনে গঠিত বঙ্গবন্ধুসহ চার নেতা হত্যার তদন্ত কমিশনকে বাংলাদেশে আসতে ভিসা দেয়া হয়নি •প্রধানমন্ত্রী আগামী ৫ সেপ্টেম্বর পদ্মা সেতুর রেল সংযোগের ফলক উন্মোচন করবেন •কলাপাড়ায় স্লুইস সংস্কার ও রাস্তা মেরামতের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন। •নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের প্রেক্ষিতে বিএনপির সরকার পদত্যাগের দাবির কোন বাস্তবতা নেই : তথ্যমন্ত্রী •মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংসের জন্যই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয় : শিল্পমন্ত্রী
Untitled Document

ঢাকা সফর নিয়ে মোদীর সঙ্গে মমতার কটাক্ষ করলেন রাহুল

তারিখ: ২০১৫-০৬-০৬ ২২:৩৩:৩৬  |  ৩৪৩ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

বাংলার বর্ণমালা   ডেস্ক  ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বাংলাদেশ সফরে আসা নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে কটাক্ষ করেছেন জাতীয় কংগ্রেসের সহসভাপতি রাহুল গান্ধী।

কলকাতায়, দলীয় কর্মীদের এক সভায় রাহুল গান্ধী বলেছেন, মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে ঢাকায় যান নি মমতা ব্যানার্জী। আর, মোদীর ডাকে চলে গেলেন।

বিবিসি শনিবার এ সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে।

ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সঙ্গেই ২০১১ সালে ঢাকা সফরে আসার কথা ছিল পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর।

কিন্তু প্রায় শেষ মুহূর্তে সেই সফরে সিংয়ের সফরসঙ্গী হতে অস্বীকার করেন মমতা ব্যানার্জী আর ছিটমহল বিনিময় বা তিস্তার জলবন্টন - দুটি বিষয়েরই প্রবল বিরোধিতা শুরু করেছিলেন।

তার প্রায় চারবছর পরে মমতা ব্যানার্জী এখন ঢাকায় গেছেন - প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে - যেখানে ছিটমহল আর অপদখলীয় ভূমি বিনিময়ের জন্য স্থল সীমান্ত  চুক্তি সই হয়েছে।



সেই প্রসঙ্গ তুলে কংগ্রেসের সহসভাপতি রাহুল গান্ধী আজ কলকাতায় দলীয় কর্মীদের এক সভায় বলেন, “আমাদের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে যাওয়ার জন্য মমতা ব্যানার্জীকে অনুরোধ করেছিলেন। তখন তিনি ঢাকা সফরে যেতে অস্বীকার করেছিলেন। কিন্তু এখন মোদীর বেলায় আর একলা চলো রে নীতি নেই। একসঙ্গেই ঢাকায় গেছেন দুজনে।”

দলীয় সমর্থকদের উদ্দেশ্যে রাহুল গান্ধীর বক্তব্য, “আপনারা সবাই বোঝেন যে কেন এই বন্ধুত্ব - কিসের সখ্যতা দুজনের।”

রাহুল গান্ধীর ইঙ্গিত ছিল যতই মুখে বি জে পি-র বিরোধিতা করুন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী, তলে তলে দুই দলের বোঝাপড়া চলছে।

এই অভিযোগ কংগ্রেস আর বামপন্থীরা বেশ কিছুদিন ধরেই করছেন।

গতবছরের লোকসভা নির্বাচনের আগে যদিও নরেন্দ্র মোদী সম্পর্কে একাধিকবার কটূক্তি করেছিলেন মমতা ব্যানার্জী, তারপরেও সারদা মামলার তদন্ত প্রসঙ্গেও সেই ধারা বজায় ছিল।

তবে বেশ কয়েকমাস ধরে বি জে পি আর নরেন্দ্র মোদীর সম্পর্কে কটূক্তি বন্ধ হয়েছে, দুজনের মধ্যে একাধিকবার বৈঠক হয়েছে, আর সংসদেও কেন্দ্রীয় সরকারের বিরোধিতার সুর বেশ কিছুটা নরম করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সদস্যরা।

সূত্র: বিবিসি


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•২০২৪ সাল পর্যন্ত রাশিয়ার উন্নয়ন পরিকল্পনা ‘মে ডিক্রি’ স্বাক্ষর পুতিনের •মেক্সিকোর জন্যে সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী বছর ২০১৭ •ইসরাইল-ফিলিস্তিন সমঝোতা প্রক্রিয়া পুনরায় শুরু করতে জাতিসংঘে রাশিয়ার আহবান •রোহিঙ্গা সংকটের টেকসই সমাধানে নমপেনের সহযোগিতা কামনা ঢাকার •মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে সম্মত •বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা নারী: “আঁর পোয়াইন্দার বাপ ইঞ্জিনিয়ার আছিল” •বাবা-মাকে ছাড়াই বাংলাদেশে তেরোশো রোহিঙ্গা শিশু • পালিয়ে আসা বহু রোহিঙ্গা নারী ধর্ষণের শিকার
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document