/* */
   Monday,  Jun 25, 2018   11 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •আওয়ামী লীগের ইতিহাস মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার ইতিহাস : প্রধানমন্ত্রী •জাতীয় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করুন : রাষ্ট্রপতি •এমপি হোক আর এমপির ছেলে হোক কাউকে ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল • তিন সিটিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা •নাইজেরিয়ার জয়ে আর্জেন্টিনার স্বপ্ন বড় হলো •আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা কর্মসূচি •টেলিটকের ফোরজির জন্য অপেক্ষা আরো চার মাস
Untitled Document

ফেসবুকের জন্য নামবদল!

তারিখ: ২০১৫-০৭-১৫ ১২:১৭:০২  |  ২১৫ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

নিউজ ডেস্ক: একসময় কবি-সাহিত্যিকরা ছদ্মনামে লেখালেখি করতেন। আর এখন অনলাইনে যারা লেখালেখি করেন, তাদের জন্য তো নাম পরিবর্তন করাটা প্রায় বাধ্যতামূলকের পর্যায়ে পেঁৗছে গেছে। এ তো গেল লেখকদের কথা। নিজের পৈতৃক নামটা পাল্টে ফেলার তালিকায় এখন শুধু তারাই নেই, সাধারণ মানুষের মধ্যেও দেখা দিয়েছে এ বাতিক। তাই তো বিভিন্ন সামাজিক
মাধ্যমে এখন অহরহ দেখা মেলে এমন সব নামধারীর। আবার এ নাম নিয়ে বিড়ম্বনাও কম হয় না। জেম্মা রজার্স নামের ব্রিটিশ এক নারীকে তো তার নামটা স্থায়ীভাবেই বদলে ফেলতে হলো এ কারণে। নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে ঢুকতে হলে যে নামে তার অ্যাকাউন্ট, সে নামটিই ব্যবহার করতে হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয় তাকে। আর এ জন্য ৩০ বছর বয়সী এ নারী তার নাম একেবারেই বদলে নিলেন। দক্ষিণ-পূর্ব লন্ডনের হলিস্টিক থেরাপিস্ট জেম্মা রজার্স ২০০৮ সালে ফেসবুকে একটি অ্যাকাউন্ট খোলেন। এ সময় তিনি তার প্রোফাইলটির নাম দেন জেমারয়েড ভন লালা। উদ্দেশ্য ছিল, নিজের পূর্বপরিচিত এবং অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যক্তিরা যাতে তাকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে বিরক্ত করতে না পারে। ছদ্মনামে ভালোই চলছিল তার ভার্চুয়াল জগৎ। কিন্তু গত মাসে হুট করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তার কাছে আসল নাম-পরিচয় জানতে চেয়ে একটি মেসেজ পাঠায়। ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়াকে ধোঁকা দিতে জেম্মা তার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নকল করে পাঠান। যাতে তিনি এটা বোঝাতে চান, তাদের পারিবারিক পদবি আসলেই ভন লালা। কিন্তু সে প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে পরদিন থেকেই ফেসবুক তার অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়। তবে এতেই দমে যাওয়ার পাত্রী নন তিনি। পাঁচ সপ্তাহ ধরে বন্ধ থাকা অ্যাকাউন্টে লগ ইন করতে প্রোফাইলের নামেই নিজের নামটা বদলে ফেলেন তিনি। অবশ্য নতুন পরিচয়পত্র ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে পাঠানোর পর এখনও নিজের অ্যাকাউন্টে ঢুকতে পারছেন না তিনি। ফিরতি মেসেজে শুধু তাকে জানানো হয়েছে, ফেসবুক বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। আর নাম বদলানোর পর জেম্মাকে এখন নতুন নামে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতেও অনুরোধ করতে হচ্ছে। খবর :এনডিটিভি।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•টেলিটকের ফোরজির জন্য অপেক্ষা আরো চার মাস •মাত্র পাঁচ মিনিটে স্মার্ট ফোন চার্জ করা যাবে! •ফেসবুক ব্যবহারে সারা পৃথিবীতে দু'নম্বরে ঢাকা •এক হলো রবি-এয়ারটেল •বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট নির্মাণের অর্ধেক কাজ সমাপ্ত. তারানা হালিম। •বিঘ্নিত হতে পারে ইন্টারনেট সেবা •পৌ‌নে ২ ঘণ্টা সময় দিলেন প্র‌তিমন্ত্রী তারানা হা‌লিম। •সিম নিবন্ধন, শেষ সময় ৩০ এপ্রিল রাত ১০টা তারানা হালিম
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document