/* */
   Thursday,  Jun 21, 2018   4 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •সিসিলিতে ৫২২ অভিবাসী নিয়ে ইতালির উপকূলরক্ষী জাহাজের অবতরণ •সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সম্পর্কে তুলে ধরতে গণমাধ্যমের প্রতি তথ্য সচিবের আহ্বান •বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী •মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •সৌদি আরবকে হারিয়ে রাশিয়াকে নিয়ে শেষ ষোলোতে উরুগুয়ে •গণভবনে মহিলা ক্রিকেটারদের প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা •প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার অক্টোবরে গঠিত হতে পারে : ওবায়দুল কাদের
Untitled Document

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে দুর্নীতিমুক্ত করতে চান জয়

তারিখ: ২০১৫-০৭-৩০ ১৭:২২:০০  |  ২৭৭ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

নিজস্ব প্রতিবেদক: অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা বন্ধ করাসহ টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে দুর্নীতিমুক্ত করতে চান প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

তিনি বলেন, টেলিযোগযোগা মন্ত্রণলায়কে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে চাই। অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা বন্ধ করা আমাদের অন্যতম টার্গেট। এক্ষেত্রে আমাদের অগ্রগতি রয়েছে। তবে, আমার উদ্দেশ্য অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

তিনি বলেন, আমার উদ্দেশ্য দেশের জন্য ভালো কিছু করা। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলা আমার অনেক দিনেরই স্বপ্ন। আমি এই কথাটি সব জায়গায় বলি যে, ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং তথ্য-যোগাযোগ প্রযুক্তি পরস্পর পরিপূরক। তবে, তথ্যের যে সেবা মানুষকে দেব সেই সেবাটির রাস্তা হচ্ছে টেলিযোগাযোগ। আওয়ামী লীগের গত টার্মে আমারই পরামর্শ ছিল যে তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগ বিজ্ঞানবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এনে টেলিযোগাযোগের সঙ্গে একত্র করতে হবে। কারণ এক সঙ্গে কাজ না করলে আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়া সম্ভব হবে না- যোগ করেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

তিনি বলেন, আমাদের অনেক কাজ হয়েছে। এখন আমি আশা করছি এবার যেহেতু দুই বিভাগ এক সঙ্গে আছে এখন আমাদের কাজ করতে আরো সুবিধা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, ‘দেশের মানুষের কাছে সেবা পৌঁছে দিতে চাই, টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার মাধ্যমে দেশের মানুষের জীবনমান উন্নত করতে চাই। এখন মোবাইল টেলিফোন কভারেজে আমরা একশ শতাংশে পৌঁছে গেছি, ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে সেই জায়গায় পৌঁছাতে চাই।’

তিনি গণমাধ্যমের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, আপনাদের সহযোগিতা চাই। মনে রাখবেন আপনারা দেশের মানুষের জন্য পরিশ্রম করেন। দেশ এগিয়ে গেলে আমরা সবাই এগিয়ে যাব।

সজীব ওয়াজেদ জয়কে স্বাগত জানান ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। পরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন জয়। এসময় তাকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সার্বিক কর্মকাণ্ডের ওপর একটি চিত্র পাওয়ার পয়েন্ট এর মাধ্যমে দেখানো হয় এবং অবহিত করা হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ ফয়জুর রহমান চৌধুরী, বিটিআরসির চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি বোষ, বিটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শওকত মোস্তফা, টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যবলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনোয়ার হোসেন প্রমুখ।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•মাত্র পাঁচ মিনিটে স্মার্ট ফোন চার্জ করা যাবে! •ফেসবুক ব্যবহারে সারা পৃথিবীতে দু'নম্বরে ঢাকা •এক হলো রবি-এয়ারটেল •বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট নির্মাণের অর্ধেক কাজ সমাপ্ত. তারানা হালিম। •বিঘ্নিত হতে পারে ইন্টারনেট সেবা •পৌ‌নে ২ ঘণ্টা সময় দিলেন প্র‌তিমন্ত্রী তারানা হা‌লিম। •সিম নিবন্ধন, শেষ সময় ৩০ এপ্রিল রাত ১০টা তারানা হালিম • যে ভাবে নাম্বার গোপন রেখে কল করবেন
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document