/* */
   Monday,  Sep 24, 2018   8 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •পবিত্র আশুরা উপলক্ষে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : আছাদুজ্জামান মিয়া •বান্দরবানে কৃষি ব্যাংকের উদ্যোগে সিংগেল ডিজিট সুদে ঋণ বিতরণ •সৌদি আরবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রথম বিদেশ সফর •জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগদিতে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ •রোহিঙ্গা বসতিতে কক্সবাজারের জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে : ইউএনডিপি •মর্যাদার লড়াইয়ে আজ মুখোমুখি ভারত ও পাকিস্তান •সংসদে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বিল, ২০১৮ পাস
Untitled Document

স্থানীয় সরকারের ৮৬ প্রকল্পে অর্থের অপচয়

তারিখ: ২০১৫-০৮-১০ ১২:৩০:৩৬  |  ২২৫ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

ডেস্ক নিউজ: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কাজ শেষ হওয়ার আগেই রাস্তা দেবে গেছে। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত একটি প্রকল্প শেষ করার সময় ২০০ ভাগ বাড়ানো হলেও কাজ শেষ হওয়ার পর যন্ত্রপাতি অব্যবহৃত পড়ে রয়েছে। সিলেট সিটি করপোরেশনের রাস্তা নির্মাণের দেড় বছরের মধ্যে আস্তর উঠে গেছে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের ৮৬ প্রকল্প পরিদর্শন করে প্রায় সবগুলোতেই একই ধরনের চিত্র পাওয়া গেছে। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি) ২০১৪-১৫ অর্থবছরে স্থানীয় সরকার বিভাগের বাস্তবায়িত ও বাস্তবায়নাধীন এসব প্রকল্প সরেজমিন পরিদর্শন করে তৈরি করা এক প্রতিবেদনে এ চিত্র পাওয়া গেছে। তবে আইএমইডির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রতিবেদনে যা উল্লেখ করা হয়েছে বাস্তব পরিস্থিতি তার চেয়েও খারাপ। এতে অর্থের ব্যাপক অপচয় ঘটেছে।


এ ব্যাপারে আইএমইডির যোগাযোগ ও স্থানীয় সরকার সেক্টরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. সেফাউল আলম সমকালের সঙ্গে আলাপকালে জানিয়েছেন, স্থানীয় সরকারের গৃহীত প্রকল্পগুলোর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ এবং আলোচিত প্রকল্পগুলো নিয়েই তারা কাজ করেছেন। আলোচিত ৮৬ প্রকল্প সরকার অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে নিয়েছিল। তিনি বলেন, কাজের ভুল ধরা নয়, গুণগত মান নিশ্চিত করা হয়েছে কি-না সেটাই খতিয়ে দেখাই তাদের উদ্দেশ্য। এসব প্রকল্পে যে সমন্বয়হীনতা ও অনিয়ম ধরা পড়েছে তা সুনির্দিষ্টভাবে প্রতিবেদন আকারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।


সম্প্রতি সংসদের অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি উত্থাপন করে আইএমইডি। কমিটির পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলা হয়েছে, অপরিকল্পিত প্রকল্প গ্রহণ, সময়মতো অর্থ ছাড় না হওয়া, দুর্বল মনিটরিংয়ের কারণে সরকারি অর্থের যথাযথ ব্যবহার হচ্ছে না। প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বছর শুরুর ৯ মাসে ২০ থেকে ৩০ ভাগ কাজ হলেও শেষ ৩ মাসে ৬০ থেকে ৭০ ভাগ কাজ হয়েছে বলে দেখানো হয়। কমিটির সভাপতি আবদুল মতিন খসরু সমকালকে বলেন, আইএমইডির প্রতিবেদন নিয়ে আরও আলোচনা হবে। এখনও এ বিষয়ে চূড়ান্ত মন্তব্য করার সময় হয়নি।


আইএমইডির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এডিপিতে ১৫৭টি প্রকল্পে বরাদ্দ ছিল ১৩ হাজার ৭৩৩ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে জিওবি ৭ হাজার ৭৭০ কোটি ৮১ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ৫ হাজার ৯৬২ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় ওই অর্থবছরে ১৭৫টি প্রকল্পের মধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের ১০টি, এলজিইডির ৯৬টি, সিটি করপোরেশনের ২৯টি, ওয়াসার ১৫টি, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ১২টি ও বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের একটি প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন রয়েছে। ১৬৪ কোটি ১০ লাখ ৯৪ হাজার টাকা ব্যয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৪২নং ওয়ার্ড এবং মোহাম্মদপুর,


আদাবর এলাকার রাস্তা, নর্দমা ও ফুটপাত উন্নয়ন প্রকল্প ২০১৪ সালের ১৬ নভেম্বর পরিদর্শন করে আইএমইডি। এ বিষয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, 'বিজ্ঞান জাদুঘর থেকে খানকা শরিফ হয়ে জামে মসজিদ পর্যন্ত নর্দমা পুনর্বাসন ও রাস্তা উন্নয়ন' কাজ মানসম্পন্ন হয়নি। ড্রেনের স্ল্যাব অসমান ও মাঝে-মধ্যে দেবে গেছে। নির্মিত রাস্তার দুই পাশে পানি জমে থাকায় রাস্তা অতি দ্রুত নষ্ট হয়ে যাবে। এ প্রকল্পের অংশ হিসেবে ঢাকা উদ্যানের ২ ও ৯ নম্বর রাস্তার সিসির কাজ ভেঙে বসে গেছে।


চলতি বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি পরিদর্শন করে আসা ১০০ কোটি ৪৫ লাখ টাকা ব্যয়ে বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের অবকাঠামো ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও পরিবেশ উন্নয়ন প্রকল্প সম্পর্কে বলা হয়েছে, হালিশহরের মাটির রাস্তা উন্নয়ন প্রকল্পে পরিদর্শনকালে পানি জমে থাকতে দেখা গেছে। খাতুনগঞ্জ সংযোগ ব্রিজ সাটারিংয়ের কাজ সঠিকভাবে না হওয়ায় ব্রিজের বাইরের দিকে কিছু জায়গা অসমান। এ ছাড়া আযব বাহার খালে রিটেইনিং ওয়াল ও খাল উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করে বলা হয়েছে, এর মাধ্যমে আংশিক সুবিধা পাওয়া গেলেও পুরোপুরি জলাবদ্ধতা থেকে চট্টগ্রাম শহর রক্ষা করা সম্ভব হবে না।


১০ কোটি ৪৫ লাখ ২২ হাজার টাকা ব্যয়ে চট্টগ্রাম সিটির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্প সম্পর্কে বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ের তুলনায় ২০০ ভাগ সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে। পরিদর্শনকালে দেখা গেছে আবর্জনা প্রসেসিং মেশিনের যন্ত্রপাতি অব্যবহৃত অবস্থায় রয়েছে। কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তারা বিদ্যুতের অভাবে যন্ত্রপাতি বন্ধ থাকার কথা জানান। ৩০টি কম্পোস্ট ট্যাঙ্ক নির্মাণ করা হলেও তার ব্যবহার শুরু হয়নি। অ্যাপ্রোচ রোড তৈরির জন্য ডিপিপিতে কোনো সংস্থান নেই। কম্পোস্ট ট্যাঙ্কের চালা থেকে বৃষ্টির পানি গড়িয়ে প্রবেশের ফলে শেড ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়ে।


চলতি বছরের ২৫ মার্চ পরিদর্শন করে আসা ৫৬ কোটি ৯৪ লাখ ৩৪ হাজার টাকা ব্যয়ে রাজশাহী সিটির ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প সম্পর্কে বলা হয়েছে, সময়মতো অর্থ বরাদ্দ না হওয়ায় প্রকল্পটির সুষ্ঠু বাস্তবায়ন ব্যাহত হয়েছে।


৪৪ কোটি ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে সিলেট সিটি করপোরেশনের গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্প ২০১৪ সালের ১২ ডিসেম্বরে পরির্দশনে যায় আইএমইডি। এ প্রকল্প সম্পর্কে তারা বলেছে, ধীরগতিতে প্রকল্প বাস্তবায়নের কারণে জনগণের চলাচলে অসুবিধার সৃষ্টি হয়। নির্মাণের দেড় বছরের মধ্যে রাস্তার সিলকোট উঠে গেছে। একই সিটির অনুন্নত এলাকায় কাঁচা রাস্তা, ড্রেন নির্মাণ রিটেইনিং ওয়াল ও কালভার্ট নির্মাণে ১৫৩ কোটি ১৩ লাখ টাকার পৃথক প্রকল্প সম্পর্কে বলা হয়েছে, কার্যাদেশ অনুসারে কাজ সমাপ্ত হয়নি।


এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগের মনিটরিং সংস্থা হিসেবে আইএমইডি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। আইএমইডি থেকে কোনো পরামর্শ বা প্রতিবেদন পাঠানো হলে তা গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করে তাৎক্ষণিকভাবে এই প্রকল্পের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হয় বলেও দাবি করেন তিনি। সচিব বলেন, উলি্লখিত ৮৬ প্রকল্প সম্পর্কে যখন যে ধরনের মতামত পাওয়া গেছে সে অনুযায়ী স্থানীয় সরকার বিভাগ ব্যবস্থা নিয়েছে। এ ব্যাপারে সংসদীয় কমিটির পরবর্তী বৈঠকে বিস্তারিত জানানো হবে।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•আগামী নির্বাচনে সকল দল অংশ নেবে : প্রধানমন্ত্রী •শ্রেষ্ঠ বিট অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন কলাপাড়া থানার এস আই নাজমুল ॥ •রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে ঢাকায় বিশ্ব নেতারা •মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী •নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচিতে বিশ্ব ব্যাংকের অতিরিক্ত ২৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানের চুক্তি স্বাক্ষর মঙ্গলবার •রাষ্ট্রের তিন বিভাগের মধ্যে ঐক্যের আহ্বান রাষ্ট্রপতির •দেশের ইতিহাসে রংপুর সিটি নির্বাচন অন্যতম সেরা : ইডব্লিউজি
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document