/* */
   Wednesday,  Sep 19, 2018   03:36 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মী প্রেরণে কোন বাধা নেই : প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী •একাদশ সংসদ নির্বাচনে এক-তৃতীয়াংশ আসনে ইভিএম •লন্ডনে গঠিত বঙ্গবন্ধুসহ চার নেতা হত্যার তদন্ত কমিশনকে বাংলাদেশে আসতে ভিসা দেয়া হয়নি •প্রধানমন্ত্রী আগামী ৫ সেপ্টেম্বর পদ্মা সেতুর রেল সংযোগের ফলক উন্মোচন করবেন •কলাপাড়ায় স্লুইস সংস্কার ও রাস্তা মেরামতের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন। •নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের প্রেক্ষিতে বিএনপির সরকার পদত্যাগের দাবির কোন বাস্তবতা নেই : তথ্যমন্ত্রী •মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংসের জন্যই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয় : শিল্পমন্ত্রী
Untitled Document

একাত্তর টিভির টকশো সিডি দাখিল

তারিখ: ২০১৫-০৮-১৬ ১২:৩৩:১২  |  ২২৮ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধান বিচারপতির সঙ্গে অন্য এক বিচারপতির কথোপকথন নিয়ে বেসরকারি টেলিভিশন একাত্তর টিভিতে সম্প্রচার করা টকশোর ভিডিও ফুটেজের সিডি আদালতে দাখিল করা হয়েছে।

রোববার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে বিচারপতি নাজমুল আরা সুলতানার নেতৃত্বে দুই সদস্যের আপিল বেঞ্চে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এ সিডি দাখিল করেন।

এ সময় একত্তার টেলিভিশনের টকশোর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত জানান, আগামী মঙ্গলবার একাত্তর টিভিতে সম্প্রচার করা টকশোর বিষয়টি পরবর্তী আদেশের জন্য কার্যতালিকায় আসবে।

এর আগে গত ১১ আগস্ট টেলিফোনে প্রধান বিচারপতির কথোপকথন নিয়ে বেসরকারি টেলিভিশন একাত্তর টিভিতে প্রচারিত অডিও টেপ এবং এ নিয়ে টকশোর ভিডিও দাখিলের নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ।

ওই দিন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘একাত্তর টিভি উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কারো দ্বারা প্রভাবিত হয়ে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে অন্য এক বিচারপতি কথোপকথনের ভিডিও প্রচার করে আদালত অবমাননা করেছে। প্রধান বিচারপতিকে হেয় করতেই প্রধান শিরোনাম করে এটা প্রচার করা হয়েছে।’

মাহবুবে আলম আরো বলেন, ‘একাত্তর টেলিভিশনে প্রধান বিচারপতির একটি কথোপকথন প্রচারের সময় তার ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। কিন্তু যার সঙ্গে কথা হয়েছে তার ছবি দেখানো হয়নি। ব্ল্যাকে রাখা হয়েছিল। আমি মনে করি এটা ‍উদ্দেশ্যেপ্রণোদিতভাবে করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যেটা আদালতে বাজাতে দেননি, সেটাই তারা বাজিয়ে সারা দেশে প্রচার করেছে। এতে প্রধান বিচারপতিকে হেয় করা হয়েছে। এখন এখানে আদালত অবমাননা হয়েছে কি না, সেটা আদালত দেখবেন।’

আদালতে আপনি কী বক্তব্য রেখেছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা আদালত অবমাননা। প্রাক্তন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহমুদুল ইসলামের কাছে আদালত জানতে চাইলে তিনিও আমার সঙ্গে একমত হয়েছেন।’

প্রসঙ্গত, দৈনিক জনকণ্ঠের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলায় তাদের প্রতিবেদনের স্বপক্ষে সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর মামলা নিয়ে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে অন্য এক বিচারপতির টেলিকথোপকথনের বিষয় আদালতে তুলে ধরেন আইনজীবী সালাউদ্দিন দোলন।

সেটি নিয়ে একাত্তর জার্নালে টকশো অনুষ্ঠিত হয়। টকশোতে প্রধান বিচারপতির কথোপকথনের ভিডিও প্রচার করা হয়।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•যুক্তরাজ্যের মানবাধিকার কর্মী জুলিয়ান ফ্রান্সিসের স্বপ্ন পূরণ হলো •কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সহ-সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় কলাপাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্য বুলেট ও মিরনকে ফুলেল শুভেচ্ছা ॥ •নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো দ্রুত এমপিওভুিক্তর চেষ্টা করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী •সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সম্পর্কে তুলে ধরতে গণমাধ্যমের প্রতি তথ্য সচিবের আহ্বান •তথ্য মন্ত্রণালয়ের ১৩ সংস্থার সঙ্গে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি •কলাপাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির আয়োজনে ইফতার ও দোয়া-মিলাদ অনুষ্ঠিত •চলচ্চিত্র পরিবারের সাথে তথ্যসচিবের মতবিনিময় •ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মূলধারার গণমাধ্যমকে নিরাপত্তা দেবে
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document