/* */
   Thursday,  Jun 21, 2018   4 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •সিসিলিতে ৫২২ অভিবাসী নিয়ে ইতালির উপকূলরক্ষী জাহাজের অবতরণ •সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সম্পর্কে তুলে ধরতে গণমাধ্যমের প্রতি তথ্য সচিবের আহ্বান •বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী •মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •সৌদি আরবকে হারিয়ে রাশিয়াকে নিয়ে শেষ ষোলোতে উরুগুয়ে •গণভবনে মহিলা ক্রিকেটারদের প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা •প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার অক্টোবরে গঠিত হতে পারে : ওবায়দুল কাদের
Untitled Document

পুতুল জমিয়ে গিনেস বুকে রেকর্ড

তারিখ: ২০১৫-০৮-১৬ ১৭:২০:৫৭  |  ২৩৯ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

ডেস্ক নিউজ: বয়স বেড়েছে বলেই কি সখের পুতুলগুলো ফেলে দিতে হবে। নাহ, এমনটাওতো কোথায় নেই যে পুতুল জমালে জরিমানা গুনতে হয়। তাহলে বেটিনার আর বাধা রইল কি। ৫৪ বছরের বেটিনা ডর্ফম্যান তাই মনের সুখে জমিয়ে রাখেন তার প্রিয় বারবি পুতুলগুলো। আর জমাতে জমাতে যখন তার বারবি সংখ্যা দাঁড়াল ১৫ হাজারে, তখন এর জন্য গিনেস বুকে নাম লিখিয়ে ফেললেন বেটিনা।

কত রঙ কত ঢঙ্গের বারবি পুতুল। কোনোটার গায়ের রঙ কালো তো কোনোটার দুধে আলতা। কেউ সাজে আর কেউ করে ঘরকন্যা। আর দশটা পুতুলের চাইতে বারবিই তাই সব ছোট্ট মেয়েদের প্রথম পছন্দ। বেটিনা ডর্ফম্যানও এর কম যেতেন না। ১৯৬৬ সাল থেকে বারবি পুতুলের সাথে যাত্রা শুরু হয় বেটিনার। এরপর তার বয়স বাড়তে থাকলেও পুতুলের সেই ছোট্ট হাত তিনি কখনও ছেড়ে দেননি।

বেটিনাকে যারা চেনে তারা সবাই যানে তার বারবি প্রীতির কথা। তাই প্রতিবছর জন্মদিনের সবাই তাকে নানা রকমের বারবি পুতুল উপহার দিয়ে থাকেন। বয়স তার পঞ্চাশ পার হলেও এখনও নাকি বেটিনা জন্মদিনে বারবি হাতে পেলেই সবচেয়ে বেশী খুশি হন।

তিনি বলেন, এরা আমার কাছে আমার পরিবারের মতো। এদের রোজগার যত্নআত্তি করতে আমার খুব ভালো লাগে। আমি নিয়ম করে এদের প্রত্যেকের চুল আঁচরাই, জামা বদলে দেই। আমার নাতনীরা তো বলে আমি এখনও বড়ই হইনি।'

বেটিনা কিন্তু বাকিদের পুতুল ভেঙে ফেলে দিতেন না। বরং সবগুলোকেই সাজিয়ে গুছিয়ে রেখে দিতেন। আর তাই তো জমতে জমতে তার কিনা এখন ১৫ হাজার বারবি ডল আছে।

এই খবর পেয়ে গিনেস রেকর্ড কর্তৃপক্ষ বেটিনার কাছে হাজির। হিসেব নিকেশ করে তারা দেখলেন যে বেটিনার বারবি সংখ্যাই বিশ্ব সবচেয়ে বেশি।

এত বারবিদের নিজের ঘরে আর রাখতে পারেন না বেটিনা। এদের জন্য তাই রয়েছে আলাদা ঘর। গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন সারাবিশ্বে নাকি বেটিনার মত প্রায় এক লাখ বারবি সংগ্রহকারী রয়েছে।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•বাংলাদেশের ঢাকায় কিভাবে কাটে তরুণীদের অবসর সময়? •বেশি ঘাম হলে মেনে চলুন কিছু টিপস •'রুয়েটের দুই মেধাবী বন্ধু প্রাণীজগতকে ক্যামেরায় বন্দির অদ্ভুত কাণ্ডকীর্তি রহস্য' •ওজন বাড়ানোর সহজ উপায় •কর্মীদের যৌন হেনস্থার ঘটনা চেপে রাখতে চায় অনেক প্রতিষ্ঠান? • ধূমপান ও মদ্যপানের নেশা ত্বকের ক্ষতি করতে পারে নানাভাবে • গরমে সবজি ও ফলমূল দিয়ে তৈরি করে নিন শরবত। • ৬টি মেয়েলি অভ্যাস পুরুষের , যা ধরিয়ে দিলেই রেগে যায়
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document