/* */
   Wednesday,  Jun 20, 2018   11:52 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •বাংলাদেশের ঢাকায় কিভাবে কাটে তরুণীদের অবসর সময়? •রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮: ইতিহাসের বিচারে কে চ্যাম্পিয়ন হতে পারে •বাংলাদেশের উপকূলের কাছে রাসায়নিক বহনকারী জাহাজে আগুন •ঈদের যুদ্ধবিরতিতে অস্ত্র ছাড়াই কাবুলে ঢুকলো তালেবান যোদ্ধারা •বিশ্বব্যাংক প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়নে ৭শ’ মিলিয়ন ডলার দেবে •ঢাকা মহানগরীতে ৪০৯টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত •জাতীয় ঈদগাহে রাষ্ট্রপতির ঈদের নামাজ আদায়
Untitled Document

মানুষসদৃশ নতুন প্রজাতি

তারিখ: ২০১৫-০৯-১২ ১৪:২২:২৮  |  ২০১ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

নিউজ ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকায় মানুষের মতো দেখতে নতুন একটি প্রজাতির সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। গুহার মতো একটি কুঠুরির গভীরে সমাহিত এ প্রজাতির কঙ্কালের ১৫টি অংশ পাওয়া গেছে। শ্রেণীবিন্যাসকরণ সূত্র অনুযায়ী, এ প্রজাতিকে 'হোমো'জেনাস বা গ্রুপের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আধুনিক মানুষও এই গ্রুপ বা জেনাসের অন্তর্ভুক্ত। গবেষকরা এ প্রজাতির নাম রেখেছেন হোমো নালেদি। খবর বিবিসি অনলাইনের। গবেষকদের দাবি,

এ আবিষ্কারের ফলে মানুষের পূর্বপুরুষ সম্পর্কে এতদিনকার প্রচলিত ধারণা পাল্টে যাবে। ধারণা করা হচ্ছে, এ প্রজাতির মানুষের মধ্যে মৃতদেহ সমাহিত করার রীতি প্রচলিত ছিল। ইলাইফ নামক একটি সাময়িকীতে এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। প্রজাতিটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য বা কতদিন আগে তারা পৃথিবীতে বসবাস করেছিল সে সম্পর্কে এখনও জানতে পারেননি গবেষকরা। তবে গবেষক দলের প্রধান অধ্যাপক লি বার্জারের ধারণা, এ প্রজাতিটি আমাদের বর্তমান মানুষ প্রজাতির (হোমো) প্রথম দিককার হবে। এরা আফ্রিকায় ৩০ লাখ বছর আগে বাস করেছে বলেও মনে করছেন তিনি। তার মতে, এই নালেদিরা হয়ত আদিম দু'পেয়ে প্রাইমেটস ও আধুনিক মানুষের মধ্যবর্তী কোনো প্রজাতি। অর্থাৎ নালেদি প্রজাতি এ দুইয়ের মধ্যকার সেতুবন্ধন।
দক্ষিণ আফ্রিকার ইউটওয়াটারস্র্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সুরক্ষিত কক্ষে রাখা হয়েছে কঙ্কালগুলো। এই ১৫টি আংশিক কঙ্কাল নবজাতক থেকে প্রাপ্তবয়স্ক নারী ও পুরুষের। অধ্যাপক লি বলেন, 'হাড়গুলো কতটা সুরক্ষিত তা দেখে আমি বিস্মিত হয়েছি। খুলি, দাঁত ও পা দেখে মনে হচ্ছে তা যেন কোনো মানবশিশুর, যদিও কঙ্কালটি আসলে একজন প্রাপ্তবয়স্ক নারীর।' তিনি বলেন, 'আফ্রিকায় পাওয়া যেকোনো আদিম মানুষের চেয়ে ভিন্ন এই হোমো নালেদি। এটির গরিলার মতো ছোট মস্তিষ্ক ছিল। ঊরুসন্ধি ও কাঁধ ছিল আদিম মানবদের মতো। তারপরও এটি হোমোজেনাসে পড়েছে, কারণ এর খুলির গড়ন বেশ প্রাগ্রসর, দাঁতগুলো তুলনামূলকভাবে ছোট, এর ছিল লম্বা পা এবং আধুনিক মানুষের মতো পায়ের পাতা।'
অধ্যাপক লি বলেন, 'প্রথমে আমরা ভেবেছিলাম যে একটি জীবাশ্ম আবিষ্কার করেছি। সেখান থেকে দেখা গেল অনেক জীবাশ্ম। তারপর অনেক কঙ্কাল ও স্বতন্ত্র ব্যক্তি আবিষ্কৃত হলো। ২১ দিনের কর্মযজ্ঞের পর আমরা মানুষের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত প্রজাতির সবচেয়ে বৃহৎ জীবাশ্মের আধার উদ্ঘাটনে সক্ষম হই। এই পরিমাণে আবিষ্কার আফ্রিকার ইতিহাসে এর আগে আর হয়নি।'
নালেদিকে গবেষকরা খুবই গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার বলে মনে করছেন। ন্যাচারাল হিস্ট্রি জাদুঘরের অধ্যাপক ক্রিস স্ট্রিঙ্গার বলেন, 'একের পর এক বিভিন্ন ধরনের প্রজাতি দেখে যা মনে হচ্ছে, কীভাবে আধুনিক মানব তৈরি করা যায় প্রকৃতি সে বিষয়ে পরীক্ষা চালিয়ে গেছে। এভাবে আফ্রিকার বিভিন্ন অংশে সমান্তরালে ভিন্ন ধরনের বহু মানবসদৃশ প্রজাতির সৃষ্টি হয়েছে। এর মধ্যে একটিই শুধু টিকে গেছে। যা থেকে আমরা এসেছি।'


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•আমতলীর আরপাঙ্গাশিয়া ইউনিয়নের উম্মুক্ত বাজেট ঘোষণা •আমতলীতে ৫ বিশিষ্ট ব্যক্তির স্মরণ সভা। •পরমাণু বিজ্ঞানী এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ৯ম মৃত্যুবার্ষিকী কাল • (জ্যাক) এর বিজ্ঞপ্তি , সাংবাদিক গাজী রহমত উল্লাহ. বহিস্কার •শোক সংবাদ গোলাম মোস্তফা • ঝিনাইদহে খালার সঙ্গে অভিমানে স্কুল শিক্ষার্থীর বিষপানে আত্মহত্যা •শৈলকুপায় আবারো বাবা-মাকে মারধর ও খেতে না দেওয়ায় উপজেলা নির্বাহী কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের •আমতলীতে সহকারী কমিশনার নাজমুল আলমের দুটি বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document