/* */
   Monday,  Sep 24, 2018   9 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •পবিত্র আশুরা উপলক্ষে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : আছাদুজ্জামান মিয়া •বান্দরবানে কৃষি ব্যাংকের উদ্যোগে সিংগেল ডিজিট সুদে ঋণ বিতরণ •সৌদি আরবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রথম বিদেশ সফর •জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগদিতে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ •রোহিঙ্গা বসতিতে কক্সবাজারের জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে : ইউএনডিপি •মর্যাদার লড়াইয়ে আজ মুখোমুখি ভারত ও পাকিস্তান •সংসদে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বিল, ২০১৮ পাস
Untitled Document

নতুন বেতন কাঠামোর গেজেট যেকোনো দিন অর্থমন্ত্রী

তারিখ: ২০১৫-১১-১২ ২০:০৪:৩৩  |  ৩০৪ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

বাংলার বর্ণমালা ডেস্ক  চলতি মাসের যে কোনো দিন সরকারি চাকরিজীবীদের নতুন বেতন কাঠামোর গেজেট ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

 

বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিজ কক্ষে বেতন বৈষম্য নিরসন সংক্রান্ত কমিটির দ্বিতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, মন্ত্রিপরিষদের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব মাহবুব আহমেদ, আইন সচিব আবু সালেক শেখ মো.জহিরুল হক উপস্থিত ছিলেন।

 

বৈঠকের আলোচনা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন করে কিছু বলার নাই। বেতন কাঠামো নিয়ে কারো কারো অভিযোগ রয়েছে। সেগুলো পর্যালোচনা হচ্ছে। এর আগেও একটি বৈঠক হয়েছে। বেতন বৈষম্য নিরসনে যে কমিটি গঠন করা হয়েছে এটা তার দ্বিতীয় বৈঠক। আমরা অনেক দূর এগিয়েছি। আশা করছি চলতি মাসের যে কোন দিন গেজেট ঘোষণা করা হবে।

 

সম্প্রতি মন্ত্রিসভায় বেতন কাঠামো অনুমোদনের পর সরকারের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সিলেকশন গ্রেড এবং টাইম স্কেল বাতিলের তীব্র প্রতিবাদ করেন এবং তা পুনর্বহালের দাবি জানান। এসব দাবির পরিপ্রেক্ষিতে অষ্টম বেতন কাঠামোতে সরকারি চাকরিজীবীদের টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বিবেচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
তিনি বলেছিলেন, সব দাবি মানা সম্ভব নয়। তবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদোন্নতি যেন সহজে হয় সেজন্য সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল পুনর্বহালের বিকল্প কী করা যায় সে বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে।

 

গত ১ নভেম্বর বেতন বৈষম্য নিরসনে গঠিত কমিটির প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সে বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, নতুন বেতন কাঠামোতে সরকারি চাকুরিজীবী, শিক্ষক কারো স্বার্থ ক্ষুন্ন হবে না। সবার বিদ্যমান সুযোগ সুবিধা অক্ষুন্ন রাখা থাকবে। বরং কিছু কিছু ক্ষেত্রে সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধা বহাল থাকবে।

 

পে-কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড তুলে দেওয়ার সুপারিশ করা হয়। সচিব কমিটিও তা বহাল রাখে। আর এ নিয়ে সরকারি চাকুরিজীবীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেডের বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করেন অর্থমন্ত্রী।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•আগামী নির্বাচনে সকল দল অংশ নেবে : প্রধানমন্ত্রী •শ্রেষ্ঠ বিট অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন কলাপাড়া থানার এস আই নাজমুল ॥ •রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে ঢাকায় বিশ্ব নেতারা •মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী •নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচিতে বিশ্ব ব্যাংকের অতিরিক্ত ২৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানের চুক্তি স্বাক্ষর মঙ্গলবার •রাষ্ট্রের তিন বিভাগের মধ্যে ঐক্যের আহ্বান রাষ্ট্রপতির •দেশের ইতিহাসে রংপুর সিটি নির্বাচন অন্যতম সেরা : ইডব্লিউজি
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document