/* */
   Friday,  Jun 22, 2018   1 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •সিসিলিতে ৫২২ অভিবাসী নিয়ে ইতালির উপকূলরক্ষী জাহাজের অবতরণ •সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সম্পর্কে তুলে ধরতে গণমাধ্যমের প্রতি তথ্য সচিবের আহ্বান •বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী •মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •সৌদি আরবকে হারিয়ে রাশিয়াকে নিয়ে শেষ ষোলোতে উরুগুয়ে •গণভবনে মহিলা ক্রিকেটারদের প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা •প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার অক্টোবরে গঠিত হতে পারে : ওবায়দুল কাদের
Untitled Document

নতুন বেতন কাঠামোর গেজেট যেকোনো দিন অর্থমন্ত্রী

তারিখ: ২০১৫-১১-১২ ২০:০৪:৩৩  |  ২৮৯ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

বাংলার বর্ণমালা ডেস্ক  চলতি মাসের যে কোনো দিন সরকারি চাকরিজীবীদের নতুন বেতন কাঠামোর গেজেট ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

 

বৃহস্পতিবার বিকেলে সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিজ কক্ষে বেতন বৈষম্য নিরসন সংক্রান্ত কমিটির দ্বিতীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, মন্ত্রিপরিষদের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব মাহবুব আহমেদ, আইন সচিব আবু সালেক শেখ মো.জহিরুল হক উপস্থিত ছিলেন।

 

বৈঠকের আলোচনা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন করে কিছু বলার নাই। বেতন কাঠামো নিয়ে কারো কারো অভিযোগ রয়েছে। সেগুলো পর্যালোচনা হচ্ছে। এর আগেও একটি বৈঠক হয়েছে। বেতন বৈষম্য নিরসনে যে কমিটি গঠন করা হয়েছে এটা তার দ্বিতীয় বৈঠক। আমরা অনেক দূর এগিয়েছি। আশা করছি চলতি মাসের যে কোন দিন গেজেট ঘোষণা করা হবে।

 

সম্প্রতি মন্ত্রিসভায় বেতন কাঠামো অনুমোদনের পর সরকারের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সিলেকশন গ্রেড এবং টাইম স্কেল বাতিলের তীব্র প্রতিবাদ করেন এবং তা পুনর্বহালের দাবি জানান। এসব দাবির পরিপ্রেক্ষিতে অষ্টম বেতন কাঠামোতে সরকারি চাকরিজীবীদের টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বিবেচনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
তিনি বলেছিলেন, সব দাবি মানা সম্ভব নয়। তবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদোন্নতি যেন সহজে হয় সেজন্য সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল পুনর্বহালের বিকল্প কী করা যায় সে বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে।

 

গত ১ নভেম্বর বেতন বৈষম্য নিরসনে গঠিত কমিটির প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সে বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, নতুন বেতন কাঠামোতে সরকারি চাকুরিজীবী, শিক্ষক কারো স্বার্থ ক্ষুন্ন হবে না। সবার বিদ্যমান সুযোগ সুবিধা অক্ষুন্ন রাখা থাকবে। বরং কিছু কিছু ক্ষেত্রে সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধা বহাল থাকবে।

 

পে-কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড তুলে দেওয়ার সুপারিশ করা হয়। সচিব কমিটিও তা বহাল রাখে। আর এ নিয়ে সরকারি চাকুরিজীবীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেডের বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করেন অর্থমন্ত্রী।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী •নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচিতে বিশ্ব ব্যাংকের অতিরিক্ত ২৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানের চুক্তি স্বাক্ষর মঙ্গলবার •রাষ্ট্রের তিন বিভাগের মধ্যে ঐক্যের আহ্বান রাষ্ট্রপতির •দেশের ইতিহাসে রংপুর সিটি নির্বাচন অন্যতম সেরা : ইডব্লিউজি •ফারমার্স ব্যাংক থেকে মহীউদ্দীন আলমগীরের পদত্যাগ বেসিক ব্যাংকের দুই সাবেক পরিচালককে জিজ্ঞাসাবাদ •বাংলাদেশে ৮ লাখ ১৭ হাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে : আইওএম •রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দশ হাজার লেট্রিন নির্মাণ করে দিবে ইউনিসেফ
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document