/* */
   Tuesday,  Jun 19, 2018   05:14 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •বাংলাদেশের ঢাকায় কিভাবে কাটে তরুণীদের অবসর সময়? •রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮: ইতিহাসের বিচারে কে চ্যাম্পিয়ন হতে পারে •বাংলাদেশের উপকূলের কাছে রাসায়নিক বহনকারী জাহাজে আগুন •ঈদের যুদ্ধবিরতিতে অস্ত্র ছাড়াই কাবুলে ঢুকলো তালেবান যোদ্ধারা •বিশ্বব্যাংক প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়নে ৭শ’ মিলিয়ন ডলার দেবে •ঢাকা মহানগরীতে ৪০৯টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত •জাতীয় ঈদগাহে রাষ্ট্রপতির ঈদের নামাজ আদায়
Untitled Document

৯টি মেগা প্রকল্পে এআইআইবি বিনিয়োগ করবে অর্থমন্ত্রী

তারিখ: ২০১৫-১১-১৫ ১৯:১৭:৩২  |  ২৩৫ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন,এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের (এআইআইবি)নয়টি মেগা প্রকল্পে বিনিয়োগ করবে। প্রকল্প গুলো হলো, রূপপুরে ১২ বিলিয়ন, পদ্মাসেতুতে ৩ বিলিয়ন, এলএনজির জন্য ২ বিলিয়ন, সোনাদিয়া গভীর সমুদ্র বন্দরের জন্য ৪ বিলিয়ন, মাতারবাড়ী কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে আড়াই বিলিয়ন, রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্পে ২ বিলিয়ন ও মেট্টোরেল প্রকল্পের জন্য ২ বিলিয়ন খরচ হবে।

আজ রোববার শেরে বাংলা নগরে অর্থমন্ত্রণালয়ের অর্থনীতি বিভাগের (ইআরডি) এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব তথ্য দেন।মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে অনেক দেশ পরমাণু প্রকল্পের দিকে ঝুঁকছে। যেমন-চীন, ব্রাজিল ও ফ্রান্স। তবে ইংল্যান্ডের পরমাণু প্রকল্প হাতে নেওয়ার কথা থাকলেও তারা সরে এসেছে। অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করছি। যেমন-১.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার দিয়ে যমুনা ব্রিজ বাস্তবায়ন করেছি।

তিনি আরো বলেন, ঐতিহাসিকভাবে বাজেটের ব্যয় বাড়ছে। আমরা আশা করছি আগামীতে বাজেট ৫ লাখ কোটি টাকা হবে। কারণ আগামীতে অনেক বড় বড় প্রকল্প অন্তভুক্ত হবে।

এর আগে মন্ত্রী বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ভাইস প্রেসিডেন্ট ওয়েনচাই জাং, ইউএন সহকারী মহাসচিব হাওলিং জু এবং এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নয়টি বড় প্রকল্পে অর্থায়ন করার বিষয়ে এআইআইবিকে আমরা প্রস্তাব দিয়েছি। ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে এআইআইবির একটি বোর্ড মিটিং হবে, সেই মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হবে তারা আমাদের এসব প্রকল্পে অর্থায়ন কত টাকা করবে।প্রকল্পতে আমাদের অনেক অর্থের প্রয়োজন। ’

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সময় বাড়ানোর কথা উল্লেখ করে মুহিত বলেন, ‘পুঁজিবাজারে ব্যাংক ও নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর বাড়তি বিনিয়োগ সমন্বয়ের সময়সীমা দু’বছর বাড়ানো হবে। ২০১৫ সালে জুলাইয়ে সময়সীমা শেষ হওয়ার কথা ছিল। এটা বাড়িয়ে ২০১৭ সাল পর্যন্ত করা হবে। তা না হলে পুঁজিবাজারে অস্থিরতা আসতে পারে।’

 


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•বিশ্বব্যাংক প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়নে ৭শ’ মিলিয়ন ডলার দেবে •ব্যাংকগুলোতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা এবং মান উন্নয়নের ওপর জোর দিয়েছেন ব্যবসায়ি নেতারা •২০২৪ সালের আগেই উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ : এলজিআরডি মন্ত্রী •রিজার্ভ চুরির ঘটনায় আরসিবিসির বিরুদ্ধে মামলা করবে বাংলাদেশ ব্যাংক •একনেকে ১৩ প্রকল্পের অনুমোদন •ন্যূনতম ১৬ হাজার টাকা বেতন চান বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শ্রমিকরা •ভারত থেকে গরুর মাংস আমদানির প্রস্তাব নাকচ •কম্বোডিয়ার সঙ্গে ১০টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document