/* */
   Tuesday,  Dec 18, 2018   7 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সজাগ থাকতে সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান •মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপিল ইসিতে খারিজ •মনোনয়ন না পাওয়া দলের প্রার্থীদের মহাজোট প্রার্থীর পক্ষে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের অনুরোধ শেখ হাসিনার •নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্পকে ‘রাজনৈতিক’ সহযোগিতার প্রস্তাব দেয় রাশিয়া •টেকনোক্রেট কোন মন্ত্রী কেবিনেটে থাকছেন না : ওবায়দুল কাদের •বেগম রোকেয়া দিবস কাল •আগামীকাল থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ . বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজ
Untitled Document

রেকর্ডভাঙ্গা বৃষ্টি, চেন্নাইয়ে মৃত ৩২৫

তারিখ: ২০১৫-১২-০৩ ২১:০৬:২৯  |  ২৯০ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:      রেকর্ডভাঙ্গা বৃষ্টিতে ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়েছে ভারতের চেন্নাইসহ গোটা তামিলনাড়ু রাজ্য। বন্যার কারণে পুরো তামিলনাড়ুই এখন যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, দোকানপাটের প্রায় সবই বন্ধ চেন্নাই শহরে। সরকারি হিসাব মতে এর মধ্যেই মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২৫ জনে। বেসরকারি হিসেবে সংখ্যাটা এর অনেক বেশি।

চরম বৃষ্টিপাতের ফলে করুণ অবস্থা সেখানকার বাসিন্দাদের। কোথাও বাড়ির দোতলা পর্যন্ত উঠে গেছে পানি, কোথাও মৃতদেহ সৎকার করার উপায় না পেয়ে দেহ আগলে বসে রয়েছে বাড়ির লোক, কোথাও ওষুধের অভাবেই প্রাণ যাচ্ছে মানুষের।

এনডিটিভি লিখেছে, শহরের রাস্তায় পানির তলায় গাড়ি আর সেই রাস্তায় ভাসছে নৌকা! সবমিলিয়ে বিচ্ছিন্ন দ্বীপে পরিণত হয়েছে তামিলনাড়ু।  পানির তলায় চলে গেছে চেন্নাইয়ের শহরতলির বেশির ভাগ বাড়ির একতলা। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ যে, বাড়ির পাইপ বেয়ে নিচে নামতে হচ্ছে নারীদের।

দেশটির আবহাওয়া অফিসের বরাত দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, শুধু গতকাল বুধবারেই রাজ্যটিতে ২১১ সেন্টিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। যা ভেঙে দিয়েছে ভারতের বৃষ্টিপাতের সব রেকর্ড। এ ছাড়া রাজ্যটির গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১২১ সেন্টিমিটার। যা রাজ্যটিতে স্মরণকালের বৃষ্টিপাতের সর্বোচ্চ রেকর্ড।

সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের কারণে তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট। বন্ধ যান চলাচল।চেন্নাই শহরে ঢোকার সব রাস্তাতেই ৮ থেকে ১০ ফুট পানি। ট্রেন লাইনে পানি উঠে যাওয়ায় বাতিল করা হয়েছে বহু ট্রেন, বদলে দেওয়া হয়েছে বহু ট্রেনের গতিপথ। সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত বাতিল ট্রেনের সংখ্যা ৪৬। গোটা দেশের সঙ্গে প্রায় বিচ্ছিন্ন চেন্নাইসহ তামিলনাড়ুর বিস্তীর্ণ এলাকা।

বাদ যায়নি বিমানবন্দরও। গতকালই রাজ্যটির চেন্নাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর চলে গিয়েছিল পানির তলায়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সেই পানি এখনো সরেনি। প্রাথমিকভাবে আগামী ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সব বিমান চলাচল।  

চেন্নাইয়ে প্রায় সব এলাকাই এখন বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন। আর শহরটির মূল টেলিফোন ভবনে পানি উঠে যাওয়ায় বিকল হয়ে গেছে টেলিফোন ব্যবস্থাও। এ ছাড়া বিদ্যুতের সরবরাহ না থাকায় বেশির ভাগ মোবাইল ফোনের টাওয়ার কাজ করছে না।

এই অবস্থায় গ্রাহকদের বিনামূল্যে টকটাইম ও নির্দিষ্ট সীমা পর্যন্ত ইন্টারনেট সেবা ব্যবহারের সুযোগ দিয়েছে কয়েকটি মোবাইল ফোন অপারেটর। কিন্তু অধিকাংশ এলাকার ব্যবহারকারীরা এই সুবিধা নিতে পারছে না।

চেন্নাইয়ের প্রধান হাসপাতালের ‘তামবরমে’ নিচতলার পুরোটাই পানির নিচে। দোতলায় হাঁটুপানির মধ্যে কোনো রকমে চলছে চিকিৎসাসেবা।

চেন্নাই, কাঞ্চিপুরম, তিরুভাল্লুর, কাড্ডালোরসহ নয়টি জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুরোপুরি বন্ধ। পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাদ্রাজ বিশ্ববিদ্যালয়ও।

তামিলনাড়ুতে পানির নিচে লাখ লাখ হেক্টর চাষের জমি। চলে গেছে মাথা গোঁজার আশ্রয়টুকুও। ত্রাণশিবিরগুলোতে খাবার পানিও খাদ্যের জন্য হাহাকার চলছে।

এনডিটিভি জানিয়েছে, সরকারি-বেসরকারি প্রায় সব প্রতিষ্ঠানই এখন বন্ধ। বহু তথ্যপ্রযুক্তি ও গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা তাদের চেন্নাই দপ্তর সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই তালিকায় রয়েছে কগনিজেন্ট, ইনফোসিস, টিসিএস, হুন্দাই, ফোর্ড ও রেনো। আরেক তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা সিসকো কর্মীদের বাড়ি থেকেই কাজ করতে বলেছে। পানি জমে আছে চেন্নাই চিড়িয়াখানাতেও।

পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে, গতকাল বুধবার ও আজ বৃহস্পতিবার চেন্নাই সিটি এডিশন প্রকাশ করতে পারেনি দ্য হিন্দু পত্রিকা।

এদিকে রাজ্যটির সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সরকার সব রকম সাহায্যের জন্য এগিয়ে এলেও এখনো প্রায় ১০ লক্ষাধিক মানুষ আটকে রয়েছে বন্যার কবলে। যদিও বেসরকারি হিসাবমতে এই সংখ্যা প্রায় ৪০ লাখ। তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা জানিয়েছেন, তাঁর দল বন্যাপ্লাবিত তামিলনাড়ুর প্রতি মুহূর্তের খবর রাখছে। উদ্ধারকাজও দ্রুত গতিতে চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এরই মধ্যে হেলিকপ্টারে করে তামিলনাড়ু পরিদর্শন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এই অবস্থায় তিনি সাম্ভাব্য সবকিছু করতে সরকারকে নির্দেশের পাশাপাশি পরিস্থিতি দ্রুত উন্নয়নের আশা করেছেন।

তবে কোনো আশার কথা শোনাতে পারেনি আবহাওয়া দপ্তর। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রের খবর আগামী ৭২ ঘণ্টা ভারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে তামিলনাড়ুতে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় চেন্নাইয়ে নেমেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ৫০ জনের দুটি দল নিয়ে আপাতত সেনাবাহিনী বন্যাপ্লাবিত এলাকায় উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে। উদ্ধারকাজ চলছে মূলত চেন্নাই শহরতলির তম্বরম আর উরপক্কমে। উদ্ধারকাজে যোগ দিয়েছে ভারতীয় নৌবাহিনীও।

এ ছাড়া দেশটির ‘ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসকিউ ফোর্সের’ ১০টি দলও বন্যাপ্লাবিত চেন্নাইয়ে মানুষের সাহায্যে নেমেছে। তাদের মধ্যে চারটি দল এর মধ্যেই কাজ চালাচ্ছে চেন্নাইয়ে। জানা গেছে, অন্য দলগুলোও তাড়াতাড়িই পৌঁছাচ্ছে।

 


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•দ. কোরিয়ার অর্থমন্ত্রী ও প্রধান নীতি নির্ধারক বরখাস্ত •যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনের পর ট্রাম্পের প্রশংসা জাপানের অ্যাবের •সৌদি আরবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রথম বিদেশ সফর •২০২৪ সাল পর্যন্ত রাশিয়ার উন্নয়ন পরিকল্পনা ‘মে ডিক্রি’ স্বাক্ষর পুতিনের •মেক্সিকোর জন্যে সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী বছর ২০১৭ •ইসরাইল-ফিলিস্তিন সমঝোতা প্রক্রিয়া পুনরায় শুরু করতে জাতিসংঘে রাশিয়ার আহবান •রোহিঙ্গা সংকটের টেকসই সমাধানে নমপেনের সহযোগিতা কামনা ঢাকার •মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে সম্মত
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document