/* */
   Monday,  Jun 18, 2018   5 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •বাংলাদেশের ঢাকায় কিভাবে কাটে তরুণীদের অবসর সময়? •রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮: ইতিহাসের বিচারে কে চ্যাম্পিয়ন হতে পারে •বাংলাদেশের উপকূলের কাছে রাসায়নিক বহনকারী জাহাজে আগুন •ঈদের যুদ্ধবিরতিতে অস্ত্র ছাড়াই কাবুলে ঢুকলো তালেবান যোদ্ধারা •বিশ্বব্যাংক প্রাথমিক শিক্ষা উন্নয়নে ৭শ’ মিলিয়ন ডলার দেবে •ঢাকা মহানগরীতে ৪০৯টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত •জাতীয় ঈদগাহে রাষ্ট্রপতির ঈদের নামাজ আদায়
Untitled Document

বাংলাদেশ শিক্ষায় বৈষম্য দূর করতে সক্ষম হয়েছে : খন্দকার মোশাররফ হোসেন ।

তারিখ: ২০১৫-১২-১০ ২০:৪২:৩৪  |  ২৪৮ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ প্রাথমিক ও মাধ্যমিক এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে শিক্ষার ক্ষেত্রে লিঙ্গ বৈষম্য দূর এবং নিরাপদ খাবার পানির সুবিধা নিশ্চিত করেছে  বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন ।

আজ বৃহস্পতিবার ভারতের “Livelihoods Asia Summit 2015”এ এলজিআরডি মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এমডিজি) তিনটি লক্ষ্য ইতোমধ্যে অর্জন করেছে।

ভারতের সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রী নাজমা এ হেপতুল্লাহ এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। এক্সেস ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস আয়োজিত এ সম্মেলনের পৃষ্টপোষক ব্র্যাক বাংলাদেশ। বাংলাদেশ হচ্ছে এ বছরে সম্মেলনের ফোকাস কান্ট্রি।

এ সম্মেলনের মূল লক্ষ্য হচ্ছে নীতি প্রণয়ন প্রভাবিত করা, সর্বোত্তম রীতির প্রদর্শন এবং গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জসমূহ মোকাবেলা। বাংলাদেশসহ এশিয়ার ৮টি দেশ থেকে ৬শ প্রতিনিধি এবারের এ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান সরকার বাংলাদেশের জনগণের আকাঙ্খাকে তুলে ধরতে ভিশন-২০২১ ভিশন-২০৪১ গ্রহন করেছে। দারিদ্র্য মুক্ত মধ্যম আয়ের একটি দেশ হয়ে ওঠার লক্ষ্য নিয়ে, এদুটি রূপকল্পে কয়েকটি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে রয়েছে নতুন জীবিকার সুযোগ তৈরির মাধ্যমে দক্ষ ও সৃজনশীল মানব সম্পদ তৈরি করা। বর্তমান সরকার দারিদ্র্য দূরীকরণকে বিশেষভাবে গুরুত্ব দিচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের টেকসই জীবিকার অভিজ্ঞতা রয়েছে। দেশের জনগণের মাথাপিছু আয় ১ হাজার ৩১৪ ডলার।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী আরও বলেন, সাসটেইনেবল রুরাল লাইভলিহুড কাঠামো অনুযায়ী কৃষি জোরদারকরণ সম্প্রসারণ হচ্ছে জীবিকা কৌশলের অন্যতম যা বাংলাদেশে খাদ্য উৎপাদনের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ একটি দেশ। আমরা জানি যে, জীবিকার বৈচিত্র হচ্ছে গ্রামের জনগণের বিশেষ করে দুস্থ পরিবারগুলোর আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ জীবিকা কৌশল।

মন্ত্রী বলেন, মঙ্গাকে লক্ষ্য করে গ্রামের গরিবদের জন্য বিকল্প জীবিকার সুযোগ নিশ্চিত করতে সরকার এক্ষেত্রে বিভিন্ন কর্মসূচি ও প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। তিনি বলেন, সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়ায় বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল এখন মঙ্গামুক্ত হয়েছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশ সরকার জীবিকার বৈচিত্র্যের ক্ষেত্রে সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ সহযোগিতামূলক সেবা প্রদান বিশেষ করে প্রশিক্ষণ ও ঋণ প্রদানের মাধ্যমে জীবিকার সুযোগ সৃষ্টিতে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে।
 


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•জেএসসি-জেডিসিতে কমানো হল ৩ বিষয় •ছাত্র বৃত্তি সঠিকভাবে বিতরণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর •বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের জন্য ইশারা ভাষা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হবে : মেনন •ঝিনাইদহে এবার স্কুল ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে এনে হত্যাচেষ্টা •আমতলীতে স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানি প্রতিবাদ করায় মেয়েসহ মামাকে মারধর •ঝিনাইদহ জেলা শিক্ষক সমিতির প্রতিবাদ সভা •দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে কোন্দল শুরু হওয়ায় শৈলকুপায় ১২টি প্রাইমারী স্কুলের অভিভাবক নির্বাচন বন্ধ •কলাপাড়ায় শিশুদের সুরক্ষা দাবীতে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document