/* */
   Monday,  Jun 25, 2018   9 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •আওয়ামী লীগের ইতিহাস মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার ইতিহাস : প্রধানমন্ত্রী •জাতীয় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করুন : রাষ্ট্রপতি •এমপি হোক আর এমপির ছেলে হোক কাউকে ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল • তিন সিটিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা •নাইজেরিয়ার জয়ে আর্জেন্টিনার স্বপ্ন বড় হলো •আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা কর্মসূচি •টেলিটকের ফোরজির জন্য অপেক্ষা আরো চার মাস
Untitled Document

পুলিশের কারসাজিতে ৭ সজিব বছরের শিশু ধর্ষণ মামলার আসামি

তারিখ: ২০১৫-১২-২২ ০০:৫৩:৩৯  |  ২৯১ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

নিউজ ডেস্ক; লিশের কারসাজিতে ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ মামলার আসামি করা হয়েছে। এ নিয়ে গোটা জেলায় আলোচনা সমালোচোনার ঝড় উঠেছে। আইনজ্ঞদের মাঝেও ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার মোস্তবাপুর গ্রামে ।

সোমবার বাবার কোলে চড়ে আদালতে হাজিরা দিতে আসে সজিব। ঝিনাইদহের অবকাশকালীন দায়রা জজ আদালতের বিচারক সানা মোহাম্মদ মারুফ হোসাইন বিষয়টি খতিয়ে দেখতে রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবীর উপর দায়িত্ব দেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরের ২৪ এপ্রিল মোস্তবাপুর গ্রামের ২য় শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করে একই গ্রামের আজগর আলীর ছেলে ১৪ বছর বয়সী আবু ইউসুফ। ঘটনাটি শিশু সজিব দেখে ফেলে চিৎকার করলে ধর্ষক পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ধর্ষিতার পিতা পরের দিন কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এজাহারে একামাত্র ধর্ষক ইউসুফকে আসামি করা হলেও পরবর্তীতে মামলার চার্জশিটে শিশু সজিবকেও আসামি করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকতা।

এ ব্যাপারে শিশু সজিবের পিতা আব্দুল মালেক বলেন, সেদিন আমার ছেলে সেখানে খেলা করছিল। ঘটনাটি দেখেছিল তাই সে আসামি হয়েছে। আমার ছেলের বয়স ৭ বছর। সে কোনো অপরাধ করেনি। আদালতের কাছে আমি সুষ্ঠু বিচার চাই।

আদালতে কেন এসেছো এমন প্রশ্নের জবাবে শিশু সজিব বলে, মামলা হয়েছে তাই এসেছি। কি মামলা সে বলতে পারে না।

ঝিনাইদহ জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এড. ইসমাইল হোসেন বলেন, ২২ ধারায় ধর্ষিতা শিশু সজিবের নাম বলেছে। তাই সে আসামি হয়েছে।

তিনি জানান, শিশু সজিবের বয়স ১০ বছর বলে পুলিশের রিপোর্টে উল্লেখ থাকলেও বয়স কম হবে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কালীগঞ্জ থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত ও বর্তমান চুয়াডাঙ্গা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত ইউনুস আলী বলেন, এজাহারে আসামি না উল্লেখ করা হলেও ধর্ষিতার জবানবন্দি অনুসারে চার্জশিটে আসামি করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, শিশু সজিব ধর্ষিতাকে ধাক্কা দিয়ে ঘরে ঢুকিয়ে দেয়। এরপর ইউসুফ তাকে ধর্ষণ করেন। তবে মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত কর্মকর্তার আরো সতর্ক হওয়া উচিৎ ছিল।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•এমপি হোক আর এমপির ছেলে হোক কাউকে ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল •বেসিক ব্যাংকের দুর্নীতি মামলার সব তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে তলব •খালেদা জিয়ার মাথায় আরো যেসব মামলা ঝুলছে •নিখোঁজ হবার প্রায় চারমাস পর 'গ্রেপ্তার' বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মহাসচিব, চারদিনের রিমান্ডে •ডেসটিনির দুই শীর্ষ কর্তার আবেদন খারিজ •প্রথমে ছেলে, পরে বাপ এসে আমার ওপর নির্যাতন করে' •ঝিনাইদহে সার কারখানা থেকে বিপুল পরিমান সালফিউরিক এ্যাসিড জব্দ, লাইসেন্স বাতিল, জরিমানা •হাইড্রোলিক হর্ন ১৫ দিনের মধ্যে থানায় জমা দিতে হবে : হাইকোর্ট
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document