/* */
   Sunday,  Jun 24, 2018   6 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •আওয়ামী লীগের ইতিহাস মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার ইতিহাস : প্রধানমন্ত্রী •জাতীয় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করুন : রাষ্ট্রপতি •এমপি হোক আর এমপির ছেলে হোক কাউকে ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল • তিন সিটিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা •নাইজেরিয়ার জয়ে আর্জেন্টিনার স্বপ্ন বড় হলো •আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা কর্মসূচি •টেলিটকের ফোরজির জন্য অপেক্ষা আরো চার মাস
Untitled Document

বহুমূল্যের গাড়ি জব্দ; ব্যবহারকারী সেলিব্রেটি মডেল

তারিখ: ২০১৬-০৪-০৬ ১৯:২৭:০১  |  ১৮১ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

 বাংলার বর্ণমালা ডেস্ক;   বিশেষ অভিযানে মঙ্গলবার এই গাড়িট জব্দ করা হয়। এমন শতাধিক দামী গাড়ি রয়েছে।

বাংলাদেশের ঢাকায় বেআইনিভাবে ব্যবহার করা আরও একটি দামী গাড়ি জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তারা।

গুলশান এলাকা থেকে জব্দ করা পোর্শা মডেলের গাড়িটি একজন সেলিব্রেটি মডেল ব্যবহার করছিলেন বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তাদের বিশেষ এক অভিযানে পরপর দুদিনে বহুমূল্যের দুটি গাড়ি জব্দ করা হল।বিবিসি

এর আগে গতকালই ঢাকার গুলশান থেকেই বিএমডব্লিউ এক্স ফাইভ মডেলের আরেকটি দামী গাড়ি জব্দ করেন তারা।

পর্যটকদের জন্য শুল্কমুক্ত সুবিধায় বিদেশ থেকে গাড়ি আনার যে সুবিধা রয়েছে, তারই অপব্যবহার করে এসব দামী গাড়ি ব্যবহার করা হচ্ছিল।

কিন্তু নিয়ম অনুসারে এসব গাড়ি পর্যটকদের জন্য ‘কার্নেট ডি প্যাসেজ’ সুবিধায় এনে আবার দেশের বাইরে ফেরত নিয়ে যাওয়ার কথা।

কিন্তু তা না করে দেশের ভেতরে এসব গাড়ি ব্যবহার করছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারাই। এ ধরনের শতাধিক গাড়ি বাংলাদেশে এখনও রয়েছে বলে জানাচ্ছেন শুল্ক গোয়েন্দারা।

 এ ধরনের দামী গাড়ি ব্যবহার করে শতকোটি টাকার শুল্ক ফাঁকি দেয়া হচ্ছে।

শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের মহাপরিচালক ড.মইনুল খান বিবিসিকে বলেছেন, “এ ধরনের গাড়ি ব্যবহার করে ধরা পড়লে পণ্যটি বাজেয়াপ্ত করা হবে।সেই সঙ্গে পণ্য-মূল্যের ১০ গুণ পর্যন্ত জরিমানা করা হবে। এছাড়া অপরাধীর বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনে এবং ফৌজদারি আইনে বিচার করা হবে। এর শাস্তি ১২ বছর পর্যন্ত জেল এবং জরিমানা দুটোই হতে পারে”।

আজ জব্দ করা পোর্শা মডেলের গাড়িটিতে হলুদ প্লেট ছিল। বাংলাদেশের একজন সেলিব্রেটি মডেল এই গাড়িটি ব্যবহার করছিলেন। তবে কর্মকর্তারা তার নামটি প্রকাশ করেননি।

কর্মকর্তারা জানান, এর আগে মঙ্গলবার বিএমডব্লিউ মডেলের যে গাড়িটি জব্দ করা হয় সেটি ব্যবহার করছিলেন একজন ব্যবসায়ী।

এসব গাড়ি শুল্ক না দিয়ে এনে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ব্যবহার করতে পারেন পর্যটকরা।

কিন্তু এগুলো বাংলাদেশেই থেকে গেছে এবং ভুয়া রেজিস্ট্রেশন করে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে ব্যবহার করা হচ্ছে।

এ ধরনের একশোর ওপরে গাড়ি আছে এবং এর মাধ্যমে ১০০ কোটি টাকার ওপর শুল্ক ফাঁকি দেয়া হচ্ছে। বিষয়টি অপরাধ, তাই এর বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হচ্ছে।

এ ধরনের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে শুল্ক আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে শুল্ক বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন, স্বেচ্ছায় কেউ গাড়ি ফেরত দিলে নমনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর তা নাহলে এ সংক্রান্ত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী •নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচিতে বিশ্ব ব্যাংকের অতিরিক্ত ২৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানের চুক্তি স্বাক্ষর মঙ্গলবার •রাষ্ট্রের তিন বিভাগের মধ্যে ঐক্যের আহ্বান রাষ্ট্রপতির •দেশের ইতিহাসে রংপুর সিটি নির্বাচন অন্যতম সেরা : ইডব্লিউজি •ফারমার্স ব্যাংক থেকে মহীউদ্দীন আলমগীরের পদত্যাগ বেসিক ব্যাংকের দুই সাবেক পরিচালককে জিজ্ঞাসাবাদ •বাংলাদেশে ৮ লাখ ১৭ হাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে : আইওএম •রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দশ হাজার লেট্রিন নির্মাণ করে দিবে ইউনিসেফ
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document