/* */
   Friday,  Jun 22, 2018   11:29 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •সিসিলিতে ৫২২ অভিবাসী নিয়ে ইতালির উপকূলরক্ষী জাহাজের অবতরণ •সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সম্পর্কে তুলে ধরতে গণমাধ্যমের প্রতি তথ্য সচিবের আহ্বান •বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী •মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •সৌদি আরবকে হারিয়ে রাশিয়াকে নিয়ে শেষ ষোলোতে উরুগুয়ে •গণভবনে মহিলা ক্রিকেটারদের প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা •প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার অক্টোবরে গঠিত হতে পারে : ওবায়দুল কাদের
Untitled Document

জোট সরকারই আসছে, এক মঞ্চে এক সুর বুদ্ধদেব-রাহুলের

তারিখ: ২০১৬-০৪-২৮ ০১:৩৭:৫৫  |  ২৪১ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

বাংলার বর্ণমালা ডেস্ক;   রাজ্যে শেষ দু’দফা ভোটের আগে নজিরবিহীন ভাবে যৌথ মঞ্চে রাহুল গাঁধী এবং বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য জানিয়ে দিলেন, রাজ্যে এ বার জোটের সরকার আসছে।

বুধবার পার্কসার্কাস ময়দানে দক্ষিণ কলকাতার জোটপ্রার্থীদের যৌথ প্রচারসভায় একই মঞ্চে ভাষণ দিলেন কংগ্রেসের সহ-সভাপতি রাহুল গাঁধী এবং রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। এমন ঘটনা যে এ দেশের রাজনীতিতে ঘটেনি সে কথা এ দিন উল্লেখ করেছেন বুদ্ধবাবু। তৃণমূলকে হারাতে বিশেষ পরিস্থিতিতে যে এই জোট বাঁধা হয়েছে, সে ব্যাখ্যাও দিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে তাঁর প্রত্যয়ী ঘোষণা, ‘‘চার দিক থেকে যা খবর পাচ্ছি জোটের সরকারই আসছে। আমার মনের জোর আছে। আপনাদের সামনে দাঁড়িয়ে এ কথা বলতে পারছি, আমরাই পারব সরকার গড়তে। কী ভাবে সরকার চালাতে হয় আমরা জানি।’’

রাহুলও পরে বুদ্ধবাবুর সুরেই জোট সরকারের আগমন বার্তা ঘোষণা করেছেন। তাঁর কথায়, ‘‘রাজ্যে জোট সরকার আসছে। মমতাজিকে বলছি, উড়ালপুল ভেঙে পড়া, চিটফান্ড কেলেঙ্কারি— এ সবের অনেক তদন্ত আপনি করেছেন। অনেক হয়েছে। এ বার তদন্ত কংগ্রেস এবং বামফ্রন্টের জোট সরকারই করবে।’’ রাহুলের আশ্বাস, নতুন সরকার এসে রাজ্যে শিল্পপ্রতিষ্ঠা এবং কর্মসংস্থানের উপর বেশি জোর দেবে। একই কথা শোনা গিয়েছে বুদ্ধবাবুর মুখেও।

আগামী শনিবার কলকাতা চারটি আসন-সহ দক্ষিণ ২৪ পরগনা-হুগলি মিলিয়ে মোট ৫৩টি আসনে ভোট। তার পরে ৫ এপ্রিল রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর এবং কোচবিহারের ২৫টি আসনে নির্বাচন। শেষ পর্বের ভোটে জোটের কর্মীরা যাতে মাটি কামড়ে লড়াই করেন, তার জন্য তাঁদের চাঙ্গা করতেও চেয়েছেন রাহুল। তাঁর বার্তা, ‘‘সাড়ে তিন বছরের বাচ্চার গায়ে যারা হাত তোলে, তারা ভয়ঙ্কর। এরা গুন্ডাদের দল। ভয়ঙ্কর সরকার। আপনাদের ভয়ের কারণ আমি বুঝি। আপনাদের বলছি, আর কয়েকটা দিন অপেক্ষা করুন।’’ এর পর তাঁর সংযোজন, ‘‘ভোটের দিন বুথে থাকুন। রাস্তায় থাকুন। পিছু হঠবেন না। মনে রাখুন জোট সরকার আসছে।’’

এ দিন এই মঞ্চে ভবানীপুরের জোটপ্রার্থী দীপা দাশমুন্সি, কসবার প্রার্থী শতরূপ ঘোষ, টালিগঞ্জের মধুজা সেন রায়, বেহালা পশ্চিমের প্রার্থী কৌস্তভ চট্টোপাধ্যায়, বালিগঞ্জের প্রার্থী কৃষ্ণা দেবনাথ-সহ দু’দলের অনেক নেতাই হাজির ছিলেন।Anandabazar

 

 


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•বাংলাদেশের উপকূলের কাছে রাসায়নিক বহনকারী জাহাজে আগুন •ভারতে নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৫ জনের মৃত্যু •ভারতের মহারাষ্ট্রে দলিত ও কট্টর হিন্দুদের সংঘর্ষ, দেড়শ বাসে আগুন •মধ্যরাতে তালিকা প্রকাশ, উৎকণ্ঠায় অধীর আসাম •মোদি অমিতাভের চেয়ে বড় অভিনেতা'রাহুল গান্ধী •রোহিঙ্গা সঙ্কট: কলকাতায় মুসলিমদের বিক্ষোভ •কোরান পড়ে বুঝেছি, তিন তালাকে তা সম্মতি দেয় না •ভারতে নতুন রাষ্ট্রপতির আনুষ্ঠানিক শপথ
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document