/* */
   Tuesday,  Dec 11, 2018   04:18 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সজাগ থাকতে সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান •মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপিল ইসিতে খারিজ •মনোনয়ন না পাওয়া দলের প্রার্থীদের মহাজোট প্রার্থীর পক্ষে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের অনুরোধ শেখ হাসিনার •নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্পকে ‘রাজনৈতিক’ সহযোগিতার প্রস্তাব দেয় রাশিয়া •টেকনোক্রেট কোন মন্ত্রী কেবিনেটে থাকছেন না : ওবায়দুল কাদের •বেগম রোকেয়া দিবস কাল •আগামীকাল থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ . বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজ
Untitled Document

রোববার থেকে ইসির কার্যক্রম নতুন ভবনে

তারিখ: ২০১৭-০১-২০ ০০:৪৩:৫৭  |  ৩১৫ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

আগামী রোববার আগারগাঁওয়ের নতুন ভবনে অফিস করবেন কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ নেতৃত্বাধীন বিদায়ী নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এর আগেই ইসি সচিবালয় ও নির্বাচন কমিশনের সব ধরনের সামগ্রী ‘নির্বাচন ভবনে’ স্থানান্তর করা হবে।

এরই মধ্যে শনিবার আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত বহুতল ভবনটির উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা কমিশন চত্বরে নির্বাচন কমিশনের বর্তমান ইসির কার্যালয় ১৯৭৩ সাল থেকে ব্যবহৃত হচ্ছে। বর্তমানে ইসির নিজস্ব ভবন ‘নির্বাচন ভবন’ আগারগাঁওয়ে নির্মাণ করা হয়েছে।

এখন দ্রুত নতুন ভবনে যাওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। মঙ্গলবার ইসি সচিবালয়ে স্থানান্তর কাজ শেষ করার বিষয়ে সভা করেন অতিরিক্ত সচিব মোখলেসুর রহমান। তিনি বলেন, ‘আমরা আগামী ২১ জানুয়ারির মধ্যে সব কিছু নতুন ভবনে স্থানান্তর করবো। ২২ জানুয়ারি থেকে সিইসি, চার নির্বাচন কমিশনার এবং ইসি সচিবালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে আমরা নির্বাচন ভবনে অফিস করবো।’

স্বাধীনতা অর্জনের ৪৫ বছর পার হলেও এতদিন নির্বাচন কমিশনের নিজস্ব কোনো অফিস ভবন ছিল না। দীর্ঘদিন  পরিকল্পনা কমিশনের চত্বরে দুটি ব্লকে নির্বাচন কমিশনের অফিস ছিল। ইসির জনসংযোগ পরিচালক এস এম আসাদুজ্জামান জানান, পাকিস্তান আমলে সেন্ট্রাল ইলেকশন কমিশনারের অফিস ছিল ইসলামাবাদে এবং তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের প্রভিনশিয়াল ইলেকশন কমিশনের অফিস ছিল ঢাকার মোমেনবাগে। ১৯৭১ সালে মে-জুন মাসে মুক্তিযোদ্ধারা প্রভিনশিয়াল ইলেকশন কমিশনের অফিসে বোমা হামলা করে এবং এতে একজন নৈশ প্রহরী মারা যান।
এরপর ১৯৭১ সালের জুনে প্রভিনশিয়াল ইলেকশন কমিশনের অফিস সচিবালয়ে স্থানান্তরিত হয়। পরবর্তীতে ১৯৭৩ সালের শেষ দিকে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের অফিস পরিকল্পনা কমিশনের ৫ ও ৬ নম্বর ব্লকে স্থানান্তরিত হয়।

বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে জুলাই ২০১১ থেকে জুন ২০১৭ মেয়াদে কন্ট্রাকশন অব ইলেকশন রিসোর্সেস সেন্টার (ইআরসি) প্রকল্পের প্রাক্কলিত ২১৩.০৩ কোটি টাকা ব্যয়ে দুটি বেইজমেন্ট ও ১২ তলাবিশিষ্ট ১.২২ লাখ বর্গফুট আয়তনের ইটিআই ভবন এবং দুটি বেইজমেন্ট ও ১১ তলাবিশিষ্ট ২.৫৮ লাখ বর্গফুট আয়তনের নির্বাচন ভবন নির্মাণ হলো।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•আইপিইউ এসেম্বলী শেষে জেনেভা থেকে দেশে ফিরলেন স্পিকার •কলাপাড়ায় টিয়াখালী ইউনিয়নের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা ॥ •নবম ওয়েজ বোর্ডের কার্যক্রম শুরু •খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ •ফিলিপাইনে ঝড়ের আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৩ •শেখ হাসিনাকে ‘বোন’ ডাকলেন হুন সেন •কবিসংসদ বাংলাদেশ-এর ২৯৯তম সাহিত্যসভা অনুষ্ঠিত •বার্মায় মুসলিম বিরোধী এক উগ্র বৌদ্ধ ভিক্ষুর কথা
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document