/* */
   Friday,  Dec 14, 2018   10:11 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সজাগ থাকতে সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান •মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপিল ইসিতে খারিজ •মনোনয়ন না পাওয়া দলের প্রার্থীদের মহাজোট প্রার্থীর পক্ষে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের অনুরোধ শেখ হাসিনার •নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্পকে ‘রাজনৈতিক’ সহযোগিতার প্রস্তাব দেয় রাশিয়া •টেকনোক্রেট কোন মন্ত্রী কেবিনেটে থাকছেন না : ওবায়দুল কাদের •বেগম রোকেয়া দিবস কাল •আগামীকাল থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ . বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজ
Untitled Document

শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করেছেন : স্পিকার

তারিখ: ২০১৭-০৪-০৪ ১০:৩২:১০  |  ২৫৩ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

  স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করেছেন ।
তিনি বলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে ১৯৯৬ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।
আজ ১৩৬তম আইপিইউ সম্মেলনে আগত জার্মান পার্লামেন্টের (বুনডেসটাগ) প্রেসিডেন্ট প্রতিনিধিদলের প্রধান, প্রফেসর ড. ল্যামার্ট নরবার্ট বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎকালে তিনি এসব কথা বলেন।
এ সময় প্রতিনিধিদলের অন্যান্য সদস্য উপস্থিত ছিলেন।
প্রতিনিধি দলের প্রধান বাংলাদেশের সংসদীয় চর্চা, সংসদীয় রীতিনীতি,বাংলাদেশের গণত›ত্র ও নির্বাচন সম্পর্কে জানতে চাইলে স্পিকার বলেন,‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দীর্ঘ ২৩ বছর পাকিস্তান সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম করেন। এরই ধারাবাহিকতায় বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে বাঙালি জাতি শোষণ ও বৈষম্য থেকে মুক্তি পায়- অর্জিত হয় কাঙ্খিত স্বাধীনতা’।
তিনি বলেন, ‘১৯৭৫ সালে সপরিবারে জাতির পিতাকে হত্যার পর গণতন্ত্র অবরুদ্ধ হয়, স্তব্ধ হয়ে যায় বাক স্বাধীনতা। পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধু কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর হতে গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধারের জন্য জনগণকে নিয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলেন। অবশেষে ১৯৯০ সালে গণতন্ত্র মুক্তি পায়। তখন থেকেই জাতীয় নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনের ধারা সূচিত হয়’।
সাক্ষাৎকালে তারা ১৩৬তম আইপিইউ এসেম্বলি, বাংলাদেশের সংসদীয় কার্যক্রম, বাংলাদেশের নির্বাচন পদ্ধতি, নারীর অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষমতায়ন, সামাজিক নিরাপত্তা, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।
এসময় প্রফেসর ড. ল্যামার্ট নরবার্ট বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রশংসা করেন এবং সন্ত্রাসবাদকে একটি বৈশ্বিক সমস্যা হিসেবে আখ্যায়িত করেন। তিনি এ সমস্যা আন্তর্জাতিকভাবে সমাধানের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।(বাসস)


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে শোক রাষ্ট্রপতির •আগামী নির্বাচনে সকল দল অংশ নেবে : প্রধানমন্ত্রী •শ্রেষ্ঠ বিট অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন কলাপাড়া থানার এস আই নাজমুল ॥ •রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে ঢাকায় বিশ্ব নেতারা •মানবসম্পদ উন্নয়নে জাপান ৩৪ কোটি টাকার অনুদান দেবে •বিপন্ন রোহিঙ্গারা স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা পাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী •নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচিতে বিশ্ব ব্যাংকের অতিরিক্ত ২৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানের চুক্তি স্বাক্ষর মঙ্গলবার •রাষ্ট্রের তিন বিভাগের মধ্যে ঐক্যের আহ্বান রাষ্ট্রপতির
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document