/* */
   Sunday,  Jun 24, 2018   7 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •আওয়ামী লীগের ইতিহাস মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার ইতিহাস : প্রধানমন্ত্রী •জাতীয় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করুন : রাষ্ট্রপতি •এমপি হোক আর এমপির ছেলে হোক কাউকে ছাড় নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী,আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল • তিন সিটিতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা •নাইজেরিয়ার জয়ে আর্জেন্টিনার স্বপ্ন বড় হলো •আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা কর্মসূচি •টেলিটকের ফোরজির জন্য অপেক্ষা আরো চার মাস
Untitled Document

আমতলীর পূর্ব কলাগাছিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাস্তায় বসে পরীক্ষা দিচ্ছে শিক্ষার্থীরা । ছাদ ধ্বসে ৫ শিক্ষার্থী আহত

তারিখ: ২০১৭-০৪-২৭ ২৩:৩৯:০৮  |  ২০০ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

আমতলী(বরগুনা) প্রতিনিধি।। 
ঝুঁকি ও আতঙ্কের মধ্যেই ক্লাস করছে বরগুনার আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী ইউপির পূর্ব কলাগাছিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা । ২৬ এপ্রিল সকালে স্কুলের অংক পরীক্ষা চলাকালে স্কুলের ছাদের পলেস্তারা খসে তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্র সুজন (৬) প্রথম শ্রেনীর ছাত্র খায়রুল (৫) দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রী মারিয়া (৬) ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র রাব্বি (৮) আহত হয়।আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।শিক্ষার্থীদের এ আতঙ্ক ও দুরবস্থার কথা জানালেও টনক নড়েনি শিক্ষা বিভাগের। 
স্কুলের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন বলেন, ভবনের ছাদ ও দেয়াল থেকে পলেস্তারা ধ্বসে পড়ায় ও পানি চুইয়ে পড়ায় শিক্ষার্থীরা ভয়ে ক্লাস করতে চায় না। তাই রাস্তায় বসে পরীক্ষা নিতে হয়েছে।
বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০০১ এলজিইডি ৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে স্কুল ভবন নির্মান করেন । ভবন নির্মানের দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও কোনো সংস্কার না করায় ভবনটি ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পরেছে । বর্তমানে শিক্ষকরা রাস্তায় বসে ক্লাশ ও পরীক্ষা কার্যক্রম চালাচ্ছে। বর্তমানে বিদ্যালয়টিতে প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। বৃষ্টি এলে শিক্ষার্থীরা বই পত্র সহ দৌড়ে আশে পাশের বাড়ির বারান্দায় আশ্রয় নেন। স্কুলের শিক্ষার্থী শারমিন ও মারিয়া বলেন, মোগো কষ্টের আর শেষ নাই। ভবনের আভাবে মোরা বৃষ্টিতে ভিজে আর রৌদ্রে শুকাইয়া লেখা পড়া করি। 
শিশু ছাত্র খায়রুল জানান, বৃষ্টি আইলেই মোরা দৌরাইয়া পাশের বাড়ি যাই। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন জানান, বিদ্যালয় ভবনটি স্থাপনের পর কোনো সংস্কার না করায় বর্তমানে ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ভবনটি সংস্কারের জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট অনেক বার আবেদন করা হয়েছে কিন্তু কোনো কাজ হচ্ছে না। 
আমতলী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. জাহিদ উদ্দিন জানান, ছাদ ধ্বসে ৫ ছাত্র আহত হওয়ার শুনেছি । সহকারী শিক্ষা অফিসার সাগরিকা রাহা সরেজমিনে গিয়েছে । ভবনের অভাবে রাস্তায় বসে পরীক্ষা ও ক্লাশ নেয়ার বিষয়টিও আমি শুনেছি এবং ভবন নির্মানের জন্য বরাদ্ধ চেয়ে ডিজি ও মন্ত্রনালয়ে বহুবার আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু এখনও বরাদ্ধ পাওয়া যায়নি। বরাদ্ধ পাওয়া গেলে ভবন নির্মানের কাজ দ্রুত করা হবে। স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. শানু মিয়া ও এলাকাাসী ও অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা ও শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে স্কুলের নতুন ভবন নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন ।


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•জেএসসি-জেডিসিতে কমানো হল ৩ বিষয় •ছাত্র বৃত্তি সঠিকভাবে বিতরণের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর •বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের জন্য ইশারা ভাষা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হবে : মেনন •ঝিনাইদহে এবার স্কুল ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে এনে হত্যাচেষ্টা •আমতলীতে স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানি প্রতিবাদ করায় মেয়েসহ মামাকে মারধর •ঝিনাইদহ জেলা শিক্ষক সমিতির প্রতিবাদ সভা •দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে কোন্দল শুরু হওয়ায় শৈলকুপায় ১২টি প্রাইমারী স্কুলের অভিভাবক নির্বাচন বন্ধ •কলাপাড়ায় শিশুদের সুরক্ষা দাবীতে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document