/* */
   Monday,  Dec 17, 2018   12:15 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সজাগ থাকতে সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান •মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপিল ইসিতে খারিজ •মনোনয়ন না পাওয়া দলের প্রার্থীদের মহাজোট প্রার্থীর পক্ষে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের অনুরোধ শেখ হাসিনার •নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্পকে ‘রাজনৈতিক’ সহযোগিতার প্রস্তাব দেয় রাশিয়া •টেকনোক্রেট কোন মন্ত্রী কেবিনেটে থাকছেন না : ওবায়দুল কাদের •বেগম রোকেয়া দিবস কাল •আগামীকাল থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ . বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজ
Untitled Document

হজ ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে প্রশিক্ষণ গ্রহণ অপরিহার্য : ধর্মমন্ত্রী

তারিখ: ২০১৮-০২-০৮ ১২:১৩:৩৭  |  ১৩৩ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

  ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বলেছেন, হজ ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে হজ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ গ্রহণের বিকল্প নেই। হজযাত্রী, হজ এজেন্সি, হজ গাইড, মোয়াজ্জেমসহ বিভিন্ন ব্যাংকের প্রতিনিধি, হজ প্রশাসনিক দল, চিকিৎসকও কারিগরিদলসহ হজ ব্যবস্থাপনার সাথে সংশ্লিষ্ট প্রত্যেক ব্যক্তির নিজ নিজ বিষয়ে দক্ষতা অর্জনের জন্য প্রশিক্ষণ গ্রহণ আবশ্যক।
তিনি বলেন, প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান কাজে লাগালে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিগণ দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন এবং বাংলাদেশের হজ ব্যবস্থাপনা উন্নত হবে।
বুধবার মন্ত্রী রাজধানীর আশকোনায় হজ অফিসে ধর্ম মন্ত্রণালয় নিয়োগকৃত আইটি প্রতিষ্ঠান বিজনেস অটোমেশন লিমিটেড আয়োজিত হজযাত্রীদের প্রাক-নিবন্ধন ও নিবন্ধন সম্পর্কে হজ এজেন্ট,ব্যাংক কর্মকর্তা এবং ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ কর্মসূচি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
ধর্মমন্ত্রী বলেন, বিগত কয়েক বছরে বাংলাদেশের হজ ব্যবস্থাপনা ডিজিটাল হজ ব্যবস্থাপনায় উন্নীত হয়েছে। সৌদি কর্তৃপক্ষের ই-হজ সিস্টেমের সাথে সমন্বয় সাধন এবং হজ ব্যবস্থাপনাকে আরো সুন্দর,স্বচ্ছ ও হয়রানিমুক্ত করার লক্ষ্যে ২০১৬ সাল থেকে প্রাক-নিবন্ধন পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। ফলে হজ ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধন ও নিবন্ধন প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ২০১৮ সালে হজে গমনের জন্য স্বচ্ছতার সাথে ইতোমধ্যে সরকারি ও বেসরকারি উভয় ব্যবস্থাপনার প্রাক-নিবন্ধন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে তিনি জানান।
ধর্মমন্ত্রী আরো বলেন, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২১ আগস্ট/৯ জিলহজ তারিখে পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে সৌদি-বাংলাদেশ হজচুক্তি-২০১৮ সম্পাদিত হয়েছে। ২০১৮ সনের হজচুক্তি অনুসারে এ বছর বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজযাত্রী হজে যেতে পারবেন।এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭ হাজার ১৯৮ জন এবং অবশিষ্ট ১ লাখ ২০ হাজার জন হজযাত্রী বেসরকারি ব্যবস্থায়পনায় হজে গমন করবেন।
অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, হজ ব্যবস্থাপনাকে হয়রানিমুক্ত করতে প্রযুক্তির ব্যবহার সহায়তা করতে পারে। তাই সুষ্ঠু হজ ব্যবস্থাপনার স্বার্থে প্রযুক্তির ব্যবহার সম্পর্কে হজ সংশ্লিষ্ঠদের হালনাগাদ প্রশিক্ষণ থাকা আবশ্যক। এছাড়া তিনি হজযাত্রীদের অসম্ভব প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিভ্রান্ত না করার জন্য হজ এজেন্সিগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।
হজ অফিসের পরিচালক মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আনিছুর রহমান,ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব (হজ) মো. হাফিজ উদ্দিন,জেদ্দায় হজ কাউন্সেলর মো. মাকসুদুর রহমান,হাবের সভাপতি মোঃ আবদুস সোবহান ভুঁইয়া প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।(বাসস) :


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•আমতলীতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা পরিষদের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত •প্রত্যেক উপজেলায় মসজিদ-মন্দিরসহ সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়নে নতুন প্রকল্প •রাষ্ট্রপতি জাতীয় ঈদগাহে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন •ওমরাহ পালনের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে দামী ফুটবলার এখন মক্কায় •খাজা মঈনুদ্দিন চিশতি (রহ.)-এর মাজার জিয়ারত করলেন প্রধানমন্ত্রী •বিয়ে বাঁচাতে যখন অচেনা লোকের সাথে রাত কাটাতে হয় •যুক্তরাজ্যে সর্বসাধারণের জন্য খুলে দেয়া হয় দেড়'শ মসজিদ
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document