/* */
   Thursday,  Oct 18, 2018   4 PM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •পবিত্র আশুরা উপলক্ষে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে : আছাদুজ্জামান মিয়া •বান্দরবানে কৃষি ব্যাংকের উদ্যোগে সিংগেল ডিজিট সুদে ঋণ বিতরণ •সৌদি আরবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রথম বিদেশ সফর •জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগদিতে শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ •রোহিঙ্গা বসতিতে কক্সবাজারের জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে : ইউএনডিপি •মর্যাদার লড়াইয়ে আজ মুখোমুখি ভারত ও পাকিস্তান •সংসদে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বিল, ২০১৮ পাস
Untitled Document

কালকিনিতে ডিকে আইডিয়াল কলেজের হোস্টেল সিট বরাদ্দের অনিয়মের অভিযোগ ছাত্রদের অনশন।

তারিখ: ২০১৮-০৭-১২ ০০:৪৮:৪৭  |  ৬২ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

 
রতন দে, কালকিনি:মাদারীপুর কালকিনি উপজেলার ডি কে আইডিয়াল সৈয়দ আতাহার আলী একাডেমি এন্ড বিশ^ বিদ্যালয় কলেজের হল সুপারের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময় আবাসিক হল রুম চেঞ্জ করে দেওয়ার অভিযোগে, অত্র কলেজের শিক্ষার্থীদের একদফা একদাবি আমারা হোস্টলে যেখানে ছিলাম সেখানেই থাকবো এই শ্লোগানে বুধবার সকাল দশটার দিকে শুরু হয়ে প্রায় ২ ঘন্টা মত অনশন চলে। তবে ডি কে আইডিয়াল কলেজে অধ্যাক্ষর আশ^াসে বিকেল পর্যন্ত আনন্দলন স্থগীত করা হয়।

সংশ্লিষ্ঠ একাধিক সূত্রে জানা গেছে, কালকিনি উপজেলার ডাসার ডি কে আইডিয়াল সৈয়দ আতাহার আলী একাডেমি এন্ড বিশ^ বিদ্যালয় কলেজের শিক্ষক(হল সুপার) ওবাইদুর রহমান কোন কিছু না জানিয়ে আগে থেকে আবাসিক হোস্টেলর শিক্ষার্থীদের নামিয়ে নতুন শিক্ষার্থীদের হলে থাকার নিদ্ধেষ দেন। এতে আগের থেকে থাকা শিক্ষার্থীরা ক্ষুধ্য হয়ে বুধবার সকাল থেকে এক দফা এক দাবিতে আনন্দলোন শুরু করে। হল সুপার শিক্ষক ওবাইদুর রহমান আনন্দলনরত শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন হুমকি ধামকি দেন এবং ছাত্রদের হাতে থাকা লিফলেট ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তবে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মমতাজ বেগমর আশ^াসে বিকেল পর্যন্ত আনন্দলন স্থগীত করা হয়।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আনন্দলনরত একাধিক শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলেন, আমাদের কলেজের হল সুপার ওবাইদুর রহমান স্যার টাকার বিনিময় আমাদের থাকা আবাসিক হল রুম অন্য ছাত্রদের সিট বরাদ্ধ দিয়ে দেয়। আমরা এটা কখনই মানবোনা। শিক্ষার্থীরা আরো জানান, ওবাইদুর স্যার আমাদের বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে বলেন কোঠা আনন্দলন করতে গিয়ে ছাত্ররা যে ঝামেলায় পরেছে বেশি বাড়াবাড়ি করলে তোমাদেরও সেই ঝামেলায় পরতে হবে।ডিকে আইডিয়াল কলেজের হল সুপার শিক্ষক ওবাইদুর রহমান বলেন, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য নয়, ভিক্তিহীন আমি কোন ছাত্রদের কাজ থেকে কোন ধরনের সুযোগ সুবিদা গ্রহন করেনি। তবে ভালো ছাত্রদের ভাল সিট দিতে হবে তাই তাদের সিট চেঞ্জ করে দেওয়া হয়েছে।এ ব্যাপারে ডিকে আইডিয়াল সৈয়দ আতাহার আলী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মমতাজ বেগম বলেন, শিক্ষার্থীদের অভিযোগ সত্য নয়। কারন ঐ আবাসিক হোস্টেলের বেশির ভাগ ছাত্ররা বিড়ি সিগ্যারেট খায় ও মোবাইর ফোন ব্যবহার করে। যা অনৈতিক কাজকর্ম করে থাকে তাই তালমিল করে এক জায়গার ছাত্র অন্য জায়গায় স্থনন্তর করা হয়েছে এর বেশি কিছু

 


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•আমতলীর আরপাঙ্গাশিয়া ইউনিয়নের উম্মুক্ত বাজেট ঘোষণা •আমতলীতে ৫ বিশিষ্ট ব্যক্তির স্মরণ সভা। •পরমাণু বিজ্ঞানী এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ৯ম মৃত্যুবার্ষিকী কাল • (জ্যাক) এর বিজ্ঞপ্তি , সাংবাদিক গাজী রহমত উল্লাহ. বহিস্কার •শোক সংবাদ গোলাম মোস্তফা • ঝিনাইদহে খালার সঙ্গে অভিমানে স্কুল শিক্ষার্থীর বিষপানে আত্মহত্যা •শৈলকুপায় আবারো বাবা-মাকে মারধর ও খেতে না দেওয়ায় উপজেলা নির্বাহী কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document