/* */
   Monday,  Dec 17, 2018   11:58 AM
Untitled Document Untitled Document
শিরোনাম: •স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সজাগ থাকতে সেনা কর্মকর্তাদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান •মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপিল ইসিতে খারিজ •মনোনয়ন না পাওয়া দলের প্রার্থীদের মহাজোট প্রার্থীর পক্ষে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের অনুরোধ শেখ হাসিনার •নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্পকে ‘রাজনৈতিক’ সহযোগিতার প্রস্তাব দেয় রাশিয়া •টেকনোক্রেট কোন মন্ত্রী কেবিনেটে থাকছেন না : ওবায়দুল কাদের •বেগম রোকেয়া দিবস কাল •আগামীকাল থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ . বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজ
Untitled Document

সংসদে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড বিল, ২০১৮ পাস

তারিখ: ২০১৮-১০-২৭ ১৭:৪২:২৬  |  ৩৯ বার পঠিত

0 people like this
Print Friendly and PDF
« আগের সংবাদ পরের সংবাদ»

সংসদ ভবন, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড অধ্যাদেশ, ১৯৮৩ রহিত করে সময়ের চাহিদার প্রতিফলনে নতুন আইন প্রণয়ন করতে প্রয়োজনীয় বিধান করে আজ সংসদে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড বিল, ২০১৮ পাস করা হয়েছে।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন।
বিলে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড অধ্যাদেশ, ১৯৮৩ এর অধীন প্রতিষ্ঠিত জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড বহাল রাখার বিধান করা হয়। বোর্ডের প্রধান কার্যালয়, ঢাকায় এবং প্রয়োজনে দেশের যে কোন স্থানে এর আঞ্চলিক বা শাখা কার্যালয় স্থাপন করার বিধান করা হয়।
বিলে একজন চেয়ারম্যান করে ৮ সদস্যের বোর্ড গঠনের বিধান করা হয়।
বিলে বোর্ডের চেয়ারম্যান নিয়োগ এবং তার দায়িত্ব ও কর্তব্য, বোর্ডের সভা, বোর্ডের কার্যাবলী, শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যসূচি প্রণয়ন কমিটি, পাঠ্যপুস্তক কমিটি গঠন, বোর্ডের কর্মচারী নিয়োগ, বোর্ডের তহবিল, বাজেট, হিসাবরক্ষণ ও নিরীক্ষা, প্রতিবেদন, বিদ্যালয় পাঠ্যপুস্তক, প্রকাশকদের নিকট থেকে তথ্য ও প্রতিবেদন, বিধি-প্রবিধি প্রণয়নের ক্ষমতাসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়।
জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম, নূরুল ইসলাম ওমর, বেগম নূর-ই-হাসনা লিলি চৌধুরী, পীর ফজলুর রহমান, রুস্তম আলী ফরাজী, বেগম মাহজাবীন মোরশেদ, ডা. আককাছ আলী সরকার, সেলিম উদ্দিন, আব্দুল মুনিম চৌধুরী, শামীম হায়দার পাটোয়ারী ও বেগম রওশান আরা মান্নান বিলের ওপর জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাব আনলে তা কন্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।
এছাড়া সংসদে কস্ট এন্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্টস বিল, ২০১৮ ও বাংলাদেশ রিহ্যাবিলিটেশন কাউন্সিল বিল, ২০১৮ উত্থাপন করা হয়। বিলটি দু’টি উত্থাপন করেন যথাক্রমে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।
পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ৩ দিনের মধ্যে সংসদে রিপোর্ট প্রদানের জন্য বিল দু’টি যথাক্রমে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ও সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।(বাসস) 


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

•টেকনোক্রেট কোন মন্ত্রী কেবিনেটে থাকছেন না : ওবায়দুল কাদের •নির্বাচনী প্রার্থীদের ১৪ নভেম্বরের মধ্যে আগাম প্রচার সামগ্রী অপসারণের নির্দেশ ইসির •জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে শিগগিরই ছোট হবে মন্ত্রিসভা : ওবায়দুল কাদের •নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল •বাংলাদেশে মোবাইলের নতুন কলরেট নিয়ে প্রতিবাদ •একাদশ সংসদ নির্বাচনে এক-তৃতীয়াংশ আসনে ইভিএম •প্রধানমন্ত্রী আগামী ৫ সেপ্টেম্বর পদ্মা সেতুর রেল সংযোগের ফলক উন্মোচন করবেন
Untitled Document
  • সর্বশেষ সংবাদ
  • সবচেয়ে পঠিত
  • এক্সক্লুসিভ

Top
Untitled Document